ফাইল ছবি

স্টাফ রিপোর্টার, জলপাইগুড়ি: ডানপন্থী হিন্দু জাতীয়তাবাদী স্বেচ্ছা- সেবক(আর এস এস) সংগঠনকে রুখতে শুরু হল যুব তৃণমূলের নতুন দাওয়াইয়ের কাজ। জলপাইগুড়ি জেলা যুব তৃণমূল কংগ্রেসের সভাপতি সৈকত চট্টোপাধ্যায় এই বিষয়ে আলোচনার জন্য রবিবার জলপাইগুড়ির হেরিটেজ ভবনে একটি জরুরী মিটিং ডাকেন। কীভাবে সমগ্র জেলা সহ পশ্চিমবঙ্গে, মিম এবং আরএসএসের প্রভাব রুখতে হবে এই মিটিঙে সেই কাজ বুঝিয়ে দিলেন দলের কর্মী ও নেতাদের।

সূত্রের খবর, এদিনের সভায় তিনি জেলা তৃণমূল কংগ্রেসকে ঢেলে সাজানোর কথা বলেন। পাশাপাশি ভেদাভেদ মুছে দলীয় কর্মীদের নিয়ে পুনরায় নতুন উদ্যামে সংগঠন শুরুর কথাও বলেন। এছাড়া এই কাজের জন্য বাছাই করা হবে নতুন সদস্যদের।

জানা গিয়েছে, আর এস এস বিস্তারক ও মিম এর এজেন্ট দের রুখতে নতুন এই সদস্যরা প্রতিদিন বিভিন্ন এলাকা থেকে কারা সাম্প্রদায়িক প্রচার বা গন্ডোগোল লাগাবার চেষ্টা করছে সেই খোঁজ নেবেন। এবং সেই বিষয়ে বিস্তারিত খবর জানাবে জেলা সভাপতিকে।

শুধু তাই নয়, হাসপাতাল থেকে শ্মশান এলাকার মানুষের যে কোনও বিপদে ঝাঁপিয়ে পড়বে তাঁদের এই বাহিনীর সদস্যরা। জানা গিয়েছে, এদের নিয়ে আগামী পৌর নির্বাচনে তৃনমূলের হয়ে ময়দানে নামবে বলে তিনি।

জেলার হেরিটেজ ভবনে আয়োজিত রবিবারের এই অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন, তৃনমূলের জলপাইগুড়ি জেলা সভাপতি কৃষ্ণ কুমার কল্যানী এবং যুব তৃনমূল এর সমস্ত ব্লকের কর্মীরা। আরও জানা গিয়েছে, জেলার গ্রামীন এলাকায় বুথ প্রতি কুড়িজন এবং পৌর এলাকায় বুথ প্রতি দশজন করে সদস্য নিয়ে এলাকার বিভিন্ন কাজ করবে এই যুব তৃনমূলের জাতীয়তাবাদী জয়বাংলা বাহিনী।