নয়াদিল্লি: তৃণমূল ছেড়ে বিজেপিতে যোগ দিচ্ছেন বাঁকুড়ার বিষ্ণুপুরের সাংসদ সৌমিত্র খাঁ৷ আজই পদ্ম শিবিরে যোগ দেবেন তিনি৷ এছাড়াও আরও ছয় জন তৃণমূল সাংসদও বিজেপির হাত ধরতে পারেন বলে জানা গিয়েছে৷

আরও পড়ুন: স্বৈরাচারী অভিষেকের জন্যেই দল ছাড়ছি: সৌমিত্র

মঙ্গলবারই বাঁকুড়ার বিষ্ণুপুরের মহাকুমা পুলিশ আধিকারীকের বিরুদ্ধে সোচ্চার হয়েছিলেন সাংসদ সৌমিত্র খাঁ৷ তাঁর অভিযোগ ছিল, লোকসভায় ভোটে লড়তে চান এসডিপিও সুকমল দাস৷ লক্ষ্যপূরণে মঙ্গলবার সাংসদের আপ্তসহায়ক সুশান্ত দাঁ ওরফে গোপিকে তুলে নিয়ে যান সুকমল দাস। তাকে তুলে নিয়ে গিয়ে গুম করা হয়েছে বলেও অভিযোগ করেন সৌমিত্রবাবু৷

এদিন ফোনে যোগাযোগ করা হলে কলকাতা 24×7-কে সাংসদ সৌমিত্র খাঁ বলেন, ‘‘যুব তৃণমূল সভাপতি অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়ের স্বৈরাচারী মনোভাব সহ্য করা যাচ্ছে না৷ ফলে দল ছাড়ছি৷ যোগ দেব বিজেপিতে৷’’

আরও পড়ুন: গুজরাতের আকাশে ভোকাট্টার লড়াইয়ে মোদী-রাহুল ঘুড়ি

এসডিপিওর সঙ্গে সাংসদের বিরোধীতার সূত্রপাত কয়েকদিন আগেই৷ বিষ্ণুপুরের সাংসদের অভিযোগ লোকসভার সদস্য হতে তাঁর বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্র করছেন এসডিপিও৷ তাঁকে খুনের পরিকল্পনাও রয়েছে সুকমল দাসের৷ তারই প্রথম পদক্ষেপ হিসাবে গুম করা হয়েছে তাঁর আপ্ত সহায়ককে৷ প্রতিবাদে ফেসবুকে ভিডিও শেয়ার করে সরব হন তিনি৷

এরপরই হুমকির সুরে বলেন বুধবার সকালে দিল্লি থেকে বাকুড়ায় গিয়েই সমস্যার সমাধান করব৷ গোটা বিষয়টিতে হস্তক্ষেপের জন্য দলনেত্রী তথা মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের হস্তক্ষেপের দাবি জানান৷ এসডিপিও-কে পদ থেকে সরিয়ে দেওয়ারও আবেদন করেন সৌমিত্র খাঁ৷

আরও পড়ুন: সোশ্যাল মিডিয়ার তথ্যের সত্যতা নিয়ে প্রশ্ন বিপিন রাওয়াতের

ঘটনার পর ২৪ ঘন্টাও কাটেনি৷ দলবদলের সিদ্ধান্তের কথা জানান বিষ্ণুপুরের তৃণমূল সাংসদ৷ তাঁর নিশানায় দলের যুব সভাপতি অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়৷ রাজনৈতির মহলের ব্যাখ্যা, দলের অভ্যন্তরেই কোনঠাসা ছিলেন সৌমিত্রবাবু৷ ফলে আগামী লোকসভায় তাঁর প্রার্থী হওয়া ছিল প্রশ্নের সামনে৷ তাই দলের যুব সভাপতিকে স্বৈরাচারী বলেই পদ্মাসনে বসতে চলেছেন তৃণমূলের এই সাংসদ৷ 

দিল্লিতে তৃণমূল ছেড়ে বিজেপিতে যোগ দিচ্ছেন প্রভাবশালী সাংসদ

তৃণমূল ছেড়ে বিজেপিতে যোগ দিলেন বাঁকুড়ার বিষ্ণুপুরের সাংসদ সৌমিত্র খাঁ৷ দিল্লির সেই যোগদানের ভিডিওবিস্তারিত পড়তে ক্লিক করুন http://bit.ly/2CcUjb2

Kolkata24x7 यांनी वर पोस्ट केले बुधवार, ९ जानेवारी, २०१९