স্টাফ রিপোর্টার, কলকাতা: লোকসভা নির্বাচন আসন্ন৷ গত ১০ মার্চ রবিবার বিকেলে ভোটের দিনক্ষণ প্রকাশ করে নির্বাচন কমিশন৷ ১১ এপ্রিল থেকে শুরু হয়ে নির্বাচন শেষ হবে ১৯ মে৷ যার ফলাফল জানা যাবে ২৩ মে৷ পশ্চিমবঙ্গে মোট সাত দফায় চলবে নির্বাচন প্রক্রিয়া৷ মঙ্গলবারই রাজ্যে ৪২ আসনে কে কোন জায়গা থেকে লড়বেন, তা ঘোষণা করলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়৷

মঙ্গলবার বেলা ৩.৩০ মিনিট নাগাদ নিজের বাড়িতে সাংবাদিক সম্মেলন করে তুলে ধরলেন প্রার্থী তালিকা৷ বেশিরভাগ আসনে কে থাকবেন তা নিশ্চিত থাকলেও কয়েকটি আসন নিয়ে সংশয় ছিল, এদিন নতুন প্রার্থীদেরও নাম উঠে আসে কিছু কেন্দ্রে৷ তবে এবারেও ৪২-এর তালিকায় রয়েছে তারকারা৷

নতুনদের মধ্যে বসিরহাট থেকে তৃণমূলের নয়া চমক অভিনেত্রী নুসরত জাহান৷ রাজনীতির ময়দানে নুসরত যে পা রাখতে চলেছেন সেই নিয়ে আগে থেকে জল্পনা ছিল৷ মঙ্গলবার সেই ছবিটাই স্পষ্ট হয়ে গেল৷ উত্তর চব্বিশ পরগণার গুরুত্বপূর্ণ কেন্দ্র বসিরহাটে ইদ্রিশ আলির পরিবর্তে লড়বেন এই জনপ্রিয় টলি অভিনেত্রী৷ এদিকে বামেদের শক্তিশালী কেন্দ্র যাদবপুরেও স্টার পাওয়ারের ওপরেই ভরসা রাখলেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়৷ সুগত বসুর জায়গায় এবার মিমিই নামছেন যাদবপুরে৷

এই দুই নতুন নামের পাশে রয়েছে আরও তিন তারকার নাম, তবে তাঁরা আগেই নেমেছেন এই লড়াইয়ে৷ ঘাটাল থেকে দেব এবং বীরভূম থেকে শতাব্দী রায় অপরিবর্তিত দুটি নাম৷ রয়েছেন মুনমুন সেনও৷ তিনিও রয়েছেন, তবে বদলে গিয়েছে শুধু কেন্দ্র৷ বাঁকুড়ায় তার জায়গায় আসছেন সুব্রত মুখোপাধ্যায়, অন্যদিকে মুনমুন দাঁড়াচ্ছেন আসানসোলে৷ যেখানে গতবার বাবুল সুপ্রিয়র বিরুদ্ধে লড়েছিলেন দোলা৷ যদিও সেই আসন হাতছাড়া হয়েছিল তৃণমূলের৷ এবার বিজেপির সেলেব ফিগার বাবুল সুপ্রিয়কে টেক্কা দিতে লড়বেন মুনমুন সেন৷

তবে তারকা প্রার্থীদের মধ্যে এবার সন্ধ্যায় রায় এবং তাপস পালের নাম নেই তালিকায়৷ মেদিনীপুরে গতবারের তৃমমূলের প্রার্থী সন্ধ্যায় রায় এবার ভোটে না লড়ে দলের হয়েই কাজ করতে চান বলে জানান তৃণমূল সুপ্রিমো৷ মোদিনীপুরে এই আসনে রয়েছেন মানস ভুঁইয়া৷ অন্যদিকে কৃষ্ণনগরে দুবারই জয়লাভ করেন তাপস পাল৷ তবে এদিন তালিকা প্রকাশে তার নাম শোনা যায়নি৷ তৃণমূলের এই আসনে লড়বেন মহুয়া মৈত্র৷