তিমিরকান্তি পতি, বাঁকুড়া: এই মুহূর্তে সর্বভারতীয় রাজনীতি তোলপাড় করা ‘এনআরসি’ নিয়ে পথে নামল শাসক তৃণমূল। আজ বুধবার বাঁকুড়ার সোনামুখীর পিয়ারবেড়ায় জাতীয় নাগরিক পঞ্জী বা এনআরসির বিরুদ্ধে সমাবেশ করল তারা। ওই সমাবেশে উপস্থিত ছিলেন দলের বিষ্ণুপুর সাংগঠনিক জেলা সভাপতি তথা রাজ্যের মন্ত্রী শ্যামল সাঁতরা, সোনামুখী ব্লক তৃণমূল সভাপতি ইউসুফ মণ্ডল প্রমুখ।

পড়ুন আরও- আট ঘন্টার বেশি কাজ করলে মিলবে ইনসেনটিভ, ঘোষণা মমতার

এদিন তৃণমূলের পক্ষ থেকে দাবী করা হয়েছে, পিয়ারবেড়ায় এনআরসি বিরোধী মঞ্চে ২২১ টি পরিবার থেকে ৮৫০ জন সদস্য বিজেপি ছেড়ে তাদের দলে যোগ দিয়েছে।

এদিন সমাবেশ শেষে সাংবাদিকদের মুখোমুখি হয়ে বিষ্ণুপুর সাংগঠনিক জেলা তৃণমূল সভাপতি শ্যামল সাঁতরা বিজেপিকে ‘খুন, সন্ত্রাস আর মিথ্যাবাদির দল’ আখ্যা দিয়ে বলেন, এক দিকে এনআরসি-র আতঙ্ক অন্যদিকে যে প্রতিশ্রুতি দিয়ে তারা ক্ষমতায় এসেছিল তার একটিও পূরণ করেনি। একই সঙ্গে বিজেপি নেতৃত্বের ‘মিথ্যা ভাষণ’ এলাকার মানুষের মধ্যে বিভ্রান্তি ছড়াচ্ছে বলেও তিনি দাবী করেন। একই সঙ্গে দলনেত্রী ও রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের উন্নয়নের সঙ্গী হতে বিজেপি কর্মীরা দলে দলে তৃণমূলে যোগ দিচ্ছেন বলে তিনি জানান।

পড়ুন আরও- ফের ধাক্কা বিজেপির, মুকুল-দিলীপের সঙ্গ ছেড়ে তৃণমূলে বহু নেতা-কর্মী

গত ২০১৬ সালে সোনামুখী বিধানসভা শাসকদলের হাতছাড়া হয়েছে। লোকসভা ভোটেও বিষ্ণুপুর কেন্দ্র থেকে তিনি নিজে পরাজিত। এই অবস্থায় ২০২১ এর বিধানসভা নির্বাচনে সোনামুখীর ফল কি হবে? সাংবাদিকদের এই প্রশ্নের উত্তরে আত্মবিশ্বাসী শ্যামল সাঁতরা বলেন, কাতারে কাতারে মানুষ তাদের কর্মসূচীতে যোগ দিচ্ছেন। হারানো জমি পূনঃরুদ্ধার এখন সময়ের অপেক্ষামাত্র বলেই তিনি মনে করেন। সোনামুখী ব্লক তৃণমূল সভাপতি মহম্মদ ইউসুফ মণ্ডল বলেন, ঘরের ছেলেরা ঘরে ফিরছে। বিজেপি মিথ্যাবাদীর দল। এই মুহূর্তে রাজ্যে তৃণমূল ও মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের বিকল্প কোনও শক্তি নেই বলেও তিনি দাবী করেন।