ফাইল ছবি

পুরুলিয়া: কথায় আছে অহংকারই পতনের কারণ। এবার তা লিখেই পোস্টার পড়ল পুরুলিয়া শহরে। তৃণমূল প্রার্থী মৃগাঙ্ক মাহাতোর নামে এমনই বিস্ফোরক পোস্টার পড়ল গোটা পুরুলিয়া শহরজুড়ে। খোদ দলীয় প্রার্থীর বিরুদ্ধে এমন পোস্টার পড়ায় স্বভাবতই অস্বস্তিতে শাসকদল। বিরোধীরাই তৃণমূলকে কালিমালিপ্ত করতে এমন পোস্টার লাগিয়েছে গোটা পুরুলিয়া শহরজুড়ে নাকি তৃণমূলের মধ্যেই কেউ এই কাজ করেছে তা নিয়ে শুরু হয়েছে জল্পনা। যদিও তৃণমূলের তরফে পুরো ঘটনার জন্যে বিজেপিকেই দায়ী করেছে। কিন্তু শাসকদলের সেই অভিযোগ উড়িয়ে দিয়েছে বিজেপি। পালটা স্থানীয় বিজেপি নেতৃত্বের দাবি, তৃণমূলের গোষ্ঠী কোন্দলের জেরেই এই ঘটনা ঘটেছে।

২০১৮ সালে পুরুলিয়াতে প্রার্থী হন মৃগাঙ্ক মাহাতো। সেই সময় দেড় লক্ষেরও বেশি ভোটে জিতেছিলেন তিনি। তাঁর জনসংযোগকে কাজে লাগিয়ে এবারও তাঁকে প্রার্থী করেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। পঞ্চায়েত নির্বাচন কিংবা একাধিক সময়ে পুরুলিয়াতে যে বিজেপির দাপট বেড়েছে তা বোঝা গিয়েছিল। কিন্তু তা সত্যেও মৃগাঙ্ককে প্রার্থী করে তৃণমূল। কিন্তু ২৩ মে দেখা যায় প্রায় কয়েকলক্ষ ভোটে বিজেপির প্রার্থী জ্যোতির্ময় সিংহ মাহাতোর কাছে হারলেন বিদায়ী সাংসদ, যার ফলে শাসকদলের হাতছাড়া হয় পুরুলিয়া।

এই অবস্থায় আজ রবিবার পুরুলিয়া শহরজুড়ে পোস্টার লাগানো দেখা যায়। যেখানে তৃণমূল প্রার্থী মৃগাঙ্ক মাহাতোর ছবি দিয়ে তার নীচে বড় করে লেখা ছিল ‘অহংকারের পতন হল।’ ব্যস্ত এলাকায় হওয়ায় অনেকেরই চোখে পড়ে ওই পোস্টার। যা নিয়ে শুরু হয় জোর আলোচনা।