স্টাফ রিপোর্টার, বাঁকুড়া: ভোটের ফলাফল প্রকাশ পরবর্তী হিংসায় উত্তপ্ত হয়ে উঠল বাঁকুড়ার তালডাংরার পাঁচমুড়া। শুক্রবার রাত থেকে দফায় দফায় রাজনৈতিক সংঘর্ষের ঘটনা ঘটল৷ পাঁচমুড়া পুরাতন বাসস্ট্যান্ড সংলগ্ন তৃণমূল সমর্থিত আইএনটিইউসি অফিস ভাঙচুরের অভিযোগ উঠল বিজেপি আশ্রিত দুষ্কৃতীদের বিরুদ্ধে। একইসঙ্গে শাসক দলের স্থানীয় এক নেতার বাড়ির একাংশে ভাঙচুর চালানো হয়েছে বলে অভিযোগ।

তৃণমূল সূত্রে দাবি করা হয়েছে, শুক্রবার রাতে পাঁচমুড়া পুরাতন বাসস্ট্যান্ড এলাকায় তাদের পার্টি অফিসে একদল দুষ্কৃতী অতর্কিতে হামলা চালায়। এই ঘটনায় পার্টি অফিসের সমস্ত আসবাবপত্রের পাশাপাশি দলীয় পতাকা ও দলনেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের ছবিও মাটিতে ফেলে দেওয়া হয়েছে বলে অভিযোগ।

পাঁচমুড়া অঞ্চল তৃণমূল সভাপতি উত্তম গরাইয়ের অভিযোগ, এক সময়ের সিপিএমের হার্মাদরা বিজেপিতে যোগ দিয়ে এই কাণ্ড ঘটিয়েছে। একই সঙ্গে তাঁর বাড়ির সদর দরজার একাংশও দুষ্কৃতী দলটি ভেঙে দিয়েছে বলে তাঁর অভিযোগ। আক্রমণকারী প্রত্যেকেই পরিচিত। বিষয়টি থানায় লিখিতভাবে জানান হবে বলে তিনি মন্তব্য করেন।

এই ঘটনার পর এলাকার পরিস্থিতি উত্তপ্ত হয়ে ওঠে। খবর পেয়ে বিশাল পুলিশ বাহিনী ঘটনাস্থলে পৌঁছয়। বিজেপির পক্ষ থেকে তৃণমূলের অভিযোগ অস্বীকার করা হয়েছে। তাদের দাবি, এই ঘটনা তৃণমূলের গোষ্ঠীদ্বন্দের ফলেই ঘটেছে। ওই পার্টি অফিসে নিত্যদিন বিভিন্ন ধরণের বেআইনি কাজ হত। যার ফলশ্রুতিতেই এই ঘটনা বলে বিজেপির দাবি।

বিজেপি মণ্ডল-২ সভাপতি সুজয় দুলে বলেন, ‘‘এই এলাকায় তৃণমূলের চার-পাঁচটি গোষ্ঠী রয়েছে। ভোটের ফলাফল খারাপ হয়ে যাওয়ার পর নিজেরাই মারামারিতে জড়িয়ে পড়েছে।’’ ওই পার্টি অফিসে কম বয়সী ছেলেদের এনে মদ খাওয়ানো হত দাবি করে তিনি বলেন, ‘‘নিজেদের মধ্যে সংঘর্ষের জেরে নিজেরাই ওই পার্টি অফিস ভেঙেছে। বিজেপি কোন অবস্থাতেই এই ভাঙচুরের সঙ্গে যুক্ত নয় বলে তাঁর দাবি।