স্টাফ রিপোর্টার, কলকাতা: করোনা প্রতিরোধে তৃণমূলের সাংসদরা মোট ১২ কোটি ৬০ লাখ টাকা তাঁদের সাংসদ তহবিল থেকে দান করলেন। সংশ্লিষ্ট জেলাশাসকদের চিঠি দিয়ে অর্থ সাহায্যের কথা জানিয়েছেন তাঁরা। তৃণমূল সাংসদদের মধ্যে কলকাতা উত্তর এবং জয়নগরের সুদীপ বন্দ্যোপাধ্যায় ও প্রতিমা মণ্ডল দিয়েছেন এক কোটি টাকা করে। কলকাতা দক্ষিণের সাংসদ মালা রায় দিয়েছেন এক কোটি এক লক্ষ টাকা।

অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায় এবং আরও ১৮ জন সাংসদ ৫০ লক্ষ টাকা করে অনুদান দিয়েছেন। এদিকে রাজ্যের বিজেপি সাংসদরা সব মিলিয়ে দিয়েছেন ২০.৩ কোটি টাকা। এর মধ্যে মধ্যে এক কোটি বা তার বেশি টাকা দিয়েছেন সাত সাংসদ। এদের মধ্যে রয়েছে এস এস আলুওয়ালিয়া, রাজ্য বিজেপির সভাপতি দিলীপ ঘোষ, অর্জুন সিং, লকেট চট্টোপাধ্যায়, সুভাষ সরকার, শান্তনু ঠাকুর। বাকি অনেকেই দিয়েছেন ৫০-৮০ লাখের মধ্যে। এছাড়াও দার্জিলিংয়ের বিধায়ক নীরজ জিম্বা তামাং দিয়েছেন ২০ লাখ টাকা।

তবে রাজ্যে দলের সব সাংসদদের থেকে বেশি অনুদান দিয়েছেন বিজেপির রাজ্যসভার সাংসদ রূপ গঙ্গোপাধ্যায়। তিনি এমপি ল্যাড থেকে আট কোটি টাকা দিয়েছেন। এদিকে করোনার ঠেকানোর লড়াই এবং চিকিৎসায় নিজের সাংসদ তহবিল থেকে এক কোটি টাকা বরাদ্দ করার জন্য স্পিকার ওম বিড়লাকে চিঠি দিয়েছেন লোকসভায় কংগ্রেসের দলনেতা অধীর চৌধুরী।

এর আগে অধীরবাবু প্রধানমন্ত্রীর ত্রাণ তহবিলে নিজের এক মাসের বেতন দিয়েছিলেন। নিজের সাংসদ তহবিল থেকে রাজ্য সরকারকেও দিয়েছিলেন ৩০ লক্ষ টাকা। এরাজ্যে বামেদের কোনও সাংসদ নেই। তবে বাম বিধায়করা মুখ্যমন্ত্রীর তহবিলে দশ লক্ষ টাকা করে দিয়েছেন।