কলকাতা: এবার করোনা আক্রান্ত রাজ্যের বিধায়ক। দক্ষিণ ২৪ পরগণার বাসিন্দা ওই বিধায়ক দক্ষিন কলকাতার বাসিন্দা। তাও আবার হরিশ চন্দ্র চ্যাটার্জি স্ট্রিটের অর্থাৎ মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের বাড়ির কাছেই থাকেন।

গত সপ্তাহে গভীর রাতে স্বাস্থ্য দফতরের লোক এসে তাঁকে তুলে নিয়ে যান। পরে তাঁর করোনা পরীক্ষা করা হলে রিপোর্ট পজিটিভ আসে। হাসপাতাল সূত্রের খবর, ওই বিধায়ক এখন স্থিতিশীল।

ওই বিধায়ক প্রথমে ভর্তি ছিলেন উডল্যান্ডস্ হাসপাতালে। করোনা পরীক্ষার রিপোর্ট পজিটিভ আসার পর, তাঁকে স্থানান্তরিত করা হয় অ্যাপোলো হাসপাতালে। এক স্থানীয় বাসিন্দা জানিয়েছেন, গভীর রাতে স্বাস্থ্য দফতরের লোক এসে তাঁকে তুলে নিয়ে যান। হাসপাতাল সূত্রের খবর, ওই বিধায়ক এখন স্থিতিশীল।

কালীঘাট সংলগ্ন ওই বিধায়কের ফ্ল্যাট ইতিমধ্যেই সিল করে দেওয়া হয়েছে। বসানো হয়েছে পুলিশি প্রহরা।

ভারতে সংক্রমণ লাফিয়ে লাফিয়ে বাড়ছে। প্রত্যেকদিন ৬ হাজারের বেশি মানুষ আক্রান্ত হচ্ছেন করোনায়। বুধবারও ফের সামনে এল সেই ভয়ঙ্কর ছবি।

গত ২৪ ঘণ্টায় আক্রান্ত ৬,৩৮৭ জন। ভারতে মোট আক্রান্তের সংখ্যা বেড়ে দাঁড়াল ১,৫১,৭৬৭। মৃতের সংখ্যাও বেড়েছে। গত ২৪ ঘণ্টায় ১৭০ জনের মৃত্যু হবেচে এই ভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছে। কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্য মন্ত্রকের দেওয়া রিপোর্ট অনুযায়ী, ভারতের মোট মৃতের সংখ্যা বেড়ে দাঁড়িয়েছে ৪,৩৩৭।

আগামী কয়েক মাস করোনা কমার লক্ষণতো নেই বরং তা আরও বহু গুন বেড়ে যাবে৷ জুলাইতে ভারতে করোনা আক্রান্তের সংখ্যা ৫ লাখ পেরিয়ে যেতে পারে৷ এমনটাই আশঙ্কা প্রকাশ করলেন মার্কিন প্রবাসী ভারতীয় অধ্যাপক ভ্রমর মুখোপাধ্যায়৷

Proshno Onek II First Episode II Kolorob TV