স্টাফ রিপোর্টার, কলকাতা: নারদের খোঁচা৷ সোমবার তাই টেলিভিশনের দিকে তাকিয়েই অনেকটা সময় কেটে গেল রাজ্যের মন্ত্রীদের৷ আর শুধু মন্ত্রী কেন৷ আমলা থেকে শুরু করে পুলিশের শীর্ষকর্তা, তালিকায় ছিলেন প্রায় সবাই৷ সরাসরি কেউ স্বীকার না করলেও দফতর সূত্রে পাওয়া খবর অনুযায়ী, কাজের ফাঁকে ফাঁকে সকলেরই চোখ ছিল টেলিভিশনের পর্দায়, উদগ্রীব ভাবে জানতে চেয়ে পিটিশন দাখিল হল কি না৷

আরও পড়ুন: ‘নারদ’ ইকবালকেই দায়ী করছে তৃণমূল

শুক্রবার নারদ মামলায় হাইকোর্ট সিবিআই তদন্তের নির্দেশ দেয়৷ এর কিছু পরেই রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় ঘোষণা করেন যে, এই রায়ের বিরুদ্ধে তাঁরা সুপ্রিম কোর্টে যাবেন৷ ইতিমধ্যেই হাইকোর্টের নির্দেশ অনুযায়ী তদন্ত শুরু করতে দিল্লি থেকে সিবিআই-এর একটি দল এসেছে কলকাতায়৷ নারদের ভিডিও ফুটেজ সংগ্রহ করেছে সিবিআই৷ ডেকে পাঠানো হয়েছে এ বিষয়ে জনস্বার্থ মামলাকারীদের৷ পাশাপাশি নারদ কর্তা ম্যাথু স্যামুয়েলের ব্যাখ্যাও তলব করা হয়েছে৷ অন্যদিকে, সুপ্রিম কোর্টে পিটিশন ফাইল করার জন্য দিল্লিতে তৈরি হতে থাকেন তৃণমূল কংগ্রেস নেতারা৷ সোমবার সকাল থেকেই টানটান উত্তেজনা তৈরি হয়৷ অধীর আগ্রহে টেলিভিশনের পর্দায় রাজ্যবাসীর সঙ্গে চোখ রাখেন রাজ্যের নেতা-মন্ত্রীরাও৷

আরও পড়ুন: ছুটি ভুলেই নারদ কান্ডে নির্দিষ্ট সময়ে রিপোর্ট দিতে বাঘা তৃণমূলিদের তলব!

রাজ্য পুলিশের এক বরিষ্ঠ আধিকারিকের কথায়, ‘‘অস্বীকার করি কী করে যে, এটা নিয়ে কোনও আগ্রহ নেই৷ ঘরে টেলিভিশন চলেই৷ মাঝে মাঝে সেদিকে চোখও রাখি৷ আজকে একটু বেশিবারই তাকিয়েছি৷ দুপুরের পর জানতে পারলাম যে সুপ্রিম কোর্টে পিটিশন দাখিল হয়েছে৷’’ অন্যদিকে, রাজ্যের সমবায় দফতর সূত্রে জানা গিয়েছে যে, মন্ত্রী অরূপ রায় আজ কাজের ফাঁকে বার বারই টেলিভিশনের দিকে তাকিয়ে ছিলেন৷ ঘনিষ্ঠ সূত্রের দেওয়া তথ্য অনুযায়ী, মন্ত্রী মহাশয়ের চোখ বার বারই টেলিভিশনের দিকে চলে যাচ্ছিল৷ যদিও তা স্বীকার করতে চাননি মন্ত্রী৷ তাঁর কথায়, ‘‘আমি সারা দিন কাজ নিয়েই ব্যস্ত ছিলাম৷ টিভি দেখার সময় পাইনি৷’’

আরও পড়ুন: নারদ মামলায় CBI তদন্তের বিরুদ্ধে সুপ্রিম কোর্টে তৃণমূলি মামলা দায়ের

একই কথা উত্তরবঙ্গ উন্নয়ন দফতরের মন্ত্রী রবীন্দ্রনাথ ঘোষেরও৷ তাঁর কথায়, ‘‘দফতরের কাজের জন্য সারা দিন আমাকে ঘুরতে হয়েছে৷ এখন এসে দফতরে বসেছি৷ টেলিভিশনটা দেখার সময় পাইনি৷’’ টেলিভিশন দেখা ছাড়াও তৃণমূল কংগ্রেসের উপর মহলের কিছু নেতা সরাসরি দিল্লিতে দলীয় নেতাদের ফোন করেও জানতে চেয়েছেন যে, সুপ্রিমকোর্টে পিটিশন দাখিল হতে আর কত দেরি৷ জানতে চেয়েছেন, ‘লেটেস্ট আপডেট’৷ ওদিক থেকে নেতারা আশ্বস্ত করে জানিয়েছেন যে, সব কিছু ঠিকঠাকই এগোচ্ছে৷ আর কিছুক্ষণের মধ্যেই পিটিশন দাখিল হবে৷

All rights reserved by @ Kolkata24x7 II প্রতিবেদনের কোন অংশ অনুমতি ছাড়া প্রকাশ করা আইনত দণ্ডনীয় অপরাধ