স্টাফ রিপোর্টার, সোনারপুর: গুলিতে মৃত্যু তৃণমূল নেতার৷ সোমবার রাতে সোনারপুরের ঘটনা৷ বাড়িতে ঢুকে তাকে গুলি করে দুষ্কৃতীরা৷ পুলিশ সূত্রে খবর, প্রোমোটিং, জমি-কেনা বেচার কাজে যুক্ত ছিলেন সমীরবাবু৷ তার জেরে কেউ এ কাজ করেছে বলে মনে করছে সোনারপুর পুলিশ৷ তদন্ত শুরু করেছে৷

পেশায় ট্যাক্সিচালক সমীরবাবু আইএনটিটিইউসির নেতা ছিলেন৷ সম্প্রতি তার সঙ্গে যুক্ত হয়েছিল প্রোমোটিং-এর কাজও৷

আরও পড়ুন: ভোটের আগেই তৃণমূলের দখলে একাধিক আসন

পুলিস সূত্রে খবর, পরিবারের কাছে একাধিকবার নিজের প্রাণনাশের আশঙ্কার কথাও তিনি বলেন৷ ক্রমেই মানসিক চাপ বাড়ছিল৷ দু’তিন মাস ধরে মদ্যপানও শুরু করেছিলেন৷

নোয়াপাড়ায় পরিবার নিয়ে ভাড়া বাড়িতে থাকতেন সমীরবাবু৷ সোমবার রাত এগারোটা নাগাদ বাড়ি ফিরে রাতের খাবার খেতে বসেন৷ হালকা বৃষ্টি পড়ছিল৷ সদর দরজা খুলেই রেখেছিলেন৷ অভিযোগ, একদল দুষ্কৃতী ঘরে ঢুকে পড়ে৷ সমীরবাবুকে লক্ষ্য করে গুলি চালায়৷ মুহূর্তে মেঝেতে লুটিয়ে পড়েন তিনি৷ উদ্ধার করে কলকাতার একটি বেসরকারি হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হলে মৃত্যু হয় তাঁর৷

আরও পড়ুন: অনশনে বসতে চলেছেন মোদী! কারণ জানলে চমকে উঠবেন

ঘটনায় এখনও পর্যন্ত কাউকে আটক বা গ্রেফতার করতে পারেনি পুলিশ। কেন এই খুন তা এখনও পরিস্কার নয়৷ তবে পুলিশের অনুমান পুরানো শত্রুতার জেরেই এই খুন৷ পুলিশ বলছে, প্রোমোটিং ও জমির কেনা বেচা সংক্রান্ত কাজে জড়িয়ে নিজের শত্রু বাড়িয়েছিলেন এই শ্রমিক নেতা। খুনের কারণও সেটাই হতে পারে বলে অনুমান৷