বীরভূম: পাঁচনের দাওয়াই দেওয়ার পর এবার ‘চোখ বুজিয়ে’ সিপিএম কর্মীদের দলে টানার পরামর্শ দিলেন বীরভূমের প্রভাবশালী তৃণমূল নেতা অনুব্রত মন্ডল৷

বাংলা রাজনীতিতে অনুব্রতর উত্থানই বিতর্কিত মন্তব্যের জেরে৷ কখনও পুলিশ-কে বোম মারতে বলা৷ কখনও বিরোধী দলের কর্মীদের গাঁজা কেসে ফাঁসিয়ে দেওয়া, তো কখনও বিরোধীদের জন্য পাঁচন দাওয়াইয়ের মতো একাধিক হুমকি সুলভ মন্তব্যের জেরেই নিজেকে বাংলার রাজনীতিতে প্রতিস্থাপিত করেছেন দিদির প্রিয় কেষ্ট৷

আরও পড়ুন- মনমোহন সবার কথা শুনতেন, মোদী কাউকে শোনেন না: প্রসূন বন্দ্যোপাধ্যায়

সপ্তদশ লোকসভা নির্বাচনের মুখে দলের নেতা কর্মীদের নিয়ে সভা করার সময় নীচুতলার এক নেতাকে অনুব্রত জিজ্ঞেস করেন, ‘বীরভূমের কোন কোন জায়গাতে এখনও সিপিএমের অস্তিত্ব রয়েছ?’ উত্তর পাওয়ার পর তিনি ফের বলেন, ‘এই সব ভোটারদের তৃণমূলে নিয়ে আসা যাচ্ছে না কেন?’ অনুব্রত বলেন, ‘‘এদের ব্যবস্থা করতে পারছিস না? বুদ্ধি দিয়ে যুক্তি দিয়ে, পরামর্শ দিয়ে , গিয়ে কথা বলে, চোখ বুজিয়ে দিয়ে৷ অনেক রকমভাবেই তো হয় নাকি৷’’ অনুব্রতর বক্তব্য সমেত এই ভিডিওটি সোশ্যাল মিডিয়াতে ভাইরাল হয়েছে৷

আরও পড়ুন- অর্জুনকে স্বাগত জানাচ্ছেন বারাকপুরের ‘মার খাওয়া’ বিজেপি নেতারাও

আরও পড়ুন- বামফ্রন্টের একতরফা প্রার্থী তালিকা ঘোষণা ভদ্রলোকের শর্ত নয়: কংগ্রেস

ভারত জয়ে ৪২-এ ৪২-এর নির্দেশ দিয়েছেন তৃণমূল সুপ্রিমো৷ সেই নির্দেশ অক্ষরে অক্ষরে বাস্তবায়িত হবে৷ সৌজন্যে অবশ্যই পাচন দাওয়াই৷ কয়েকদিন আগে এমনটাই জানিয়েছিলেন দিলেন অনুব্রত মণ্ডল৷ বারাসাত বিশেষ আদালতে একটি মামলার জন্য এসেছিলেন বীরভূম জেলা তৃণমূল সভাপতি অনুব্রত মন্ডল৷ সেখানেই লাল মাটির দেশের কেষ্ট দাবি করেন, আসন্ন লোকসভায় বিজেপি ১০০টির বেশি আসন পাবে না৷ মোদীকে মুখ্যমন্ত্রীর দেওয়া ম্যাডিবাবুর সুরে তাল মিলিয়ে প্রধানমন্ত্রীকে ‘পাগল’বলেও আখ্যা দেন তিনি৷

আরও পড়ুন- বামের ভোট রামের ঝুলিতে না গেলেই জয় পাবেন তৃণমূলের বিজয়