দেবময় ঘোষ, কলকাতা: বিধাননগর মেলার মাঠে ২৫ হাজার তৃণমূল সমর্থকদের জন্য থাকা খাওয়ার ব্যবস্থা করা হয়েছে। কিন্তু, ‘২১ শে জুলাই’ শহীদ দিবস জনসভার ৪৮ ঘন্টা আগে বিশালাকার টেন্ট বা তাঁবুগুলি যেন ‘গড়ের মাঠ।’ এখানে-ওখানে ইতিউতি মানুষ রয়েছে। কিন্তু অন্যান্যবারের তুলনায় যা নগণ্য। দু-একটি বাদ দিয়ে উত্তরবঙ্গের সবকটি জেলা থেকেই জন সমাগম হয়েছে বিধাননগরের সেন্ট্রাল পার্কের এই মেলা মাঠে।

কিন্তু, অনান্যবারের সঙ্গে তুলনায় শুক্রবার বিকাল পর্যন্ত জনসমাগম অত্যন্ত কম। উদ্যোগতাদের দাবি, সবে শুক্রবার বিকাল। মাঝে একটা পুরদিন পরে আছে। এই মাঠে তিল ধরানোর জায়গা থাকবে না। তৃণমূলের দক্ষিণ দিনাজপুরের জেলা সভাপতি অর্পিতা ঘোষ সংগঠনের দায়িত্ব সামলাচ্ছেন। ওই জেলার আগের সভাপতি বিপ্লব মিত্র এখন বিজেপিতে যোগদান করেছেন।

অর্পিতার দাবি, “বিশাল সমাবেশ হবে। বন্যা পরিস্থিতির জন্য কিছু সমস্যা হয়েছে। কিন্তু অন্যবারের থেকে বেশি আসবে।” অর্পিতার সাফ কথা বাংলায় বিজেপি নেই। ২০২১ সালে সংগঠনটি বোঝা যাবে। কিছু লোক টাকার লোভে বিজেপিতে গিয়েছে। উত্তরবঙ্গে বন্যা পরিস্থিতির জন্যই ভিড় এখন বাড়েনি বলে মনে করেন রাজ্যের দমকল মন্ত্রী সুজিত বোসও।

সুজিতবাবু বিধাননগরের বিধায়ক। তাঁর উদ্যোগেই প্রতিবার মেলা মাঠে ২১ জুলাই সমাবেশের দর্শক দুদিন আগে থেকেই রাজ্যের দিক দিক থেকে ভিড় জমান। দমকল মন্ত্রী জানান, “২৫ হাজার লোক মেলা মাঠে থাকবেন। খাবেন। মূলত দু-একটা জেলা বাদ দিয়ে উত্তরবঙ্গের মানুষই এখানে আসবেন। তবে বন্যা পরিস্থিতির জন্য অনেকেই এখনো আসতে পারেননি।”