নিজস্ব প্রতিনিধি, কোচবিহার: ফরওয়ার্ড ব্লকের দলীয় কার্যালয়ে ভাঙচুর করে ঝুলিয়ে দেওয়া হল তৃণমূল কংগ্রেসের পতাকা। এই ঘটনার তীব্র নিন্দা করেছেন স্থানীয় তৃণমূল বিধায়ক মিহির গোস্বামী।

ঘটনাটি ঘটেছে কোচবিহার শহরের এক নম্বর ওয়ার্ডের মান্টু দাসগুপ্তপল্লি এলাকায়। মঙ্গলবার রাতের দিকে ওই এলাকার ফরওয়ার্ড ব্লকের একটি কার্যালয়ে ভাঙচুর চালানো হয়। এই ঘটনার পিছনে তৃণমূল কংগ্রেস জড়িত বলে দাবি করেছে স্থানীয় ফরওয়ার্ড ব্লক নেতৃত্ব।

কার্যালয়ে থাকা টেলিভিশন, আলমারি এবং চেয়ার ভাঙচুর করা হয়েছে বলে অভিযোগ উঠেছে। এরপরে ফরওয়ার্ডের ওই কার্যালয়ে ঝুলিয়ে দেওয়া হয় তৃণমূল কংগ্রেসের দলীয় ঘাস ফুল পতাকা। আরও বড় বিষয় হচ্ছে ওই কার্যালয়ে স্থানীয় বিধায়ক মিহির গোস্বামীর ছবি সম্বলিত ফ্লেক্স রেখে দেওয়া হয়।

বুধবার সকালে এই ঘটনা প্রকাশ্যে আসতেই এলাকা জুড়ে ছড়ায় চাঞ্চল্য। এই বিষয়ে কোতয়ালি থানায় লিখিত অভিযোগ দায়ের করা হয়েছে ফরওয়ার্ড ব্লকের পক্ষ থেকে। অভিযুক্তদের অবিলম্বে গ্রেফতার করার দাবি তুলেছে এই বাম শরিক।

কোচবিহার শহরের এক নম্বর ওয়ার্ড রয়েছে ফরওয়ার্ড ব্লকের দখলে। এলাকায় এখনও বেশ দাপট রয়েছে সিংহ শিবিরের। ফরওয়ার্ড ব্লক নেতা দেবাশীষ বনিকের দাবি, “এলাকায় অশান্তি তৈরি করতে তৃণমূল কংগ্রেস আশ্রিত দুষ্কৃতিরা এই কাজ করেছে।” এদিন পার্টি অফিসে ভাঙচুর চালানোর পাশাপাশি আলমারিতে রাখা সংগঠনের প্রায় ৯ হাজার টাকাও লুঠ করা হয়েছে বলে তিনি অভিযোগ করেন।

বিধায়ক মিহির গোস্বামী

বিরোধী দলের কার্যালয় ভাঙচুর চালিয়ে সেখানে তাঁর ছবি রেখে দেওয়ার অস্বস্তিতে পড়েছেন বিধায়ক মিহির গোস্বামী। এই নিন্দনীয় ঘটনার সঙ্গে জড়িতদের বিরুদ্ধে পুলিশ ব্যবস্থা নেওয়া হবে বলে জানিয়েছেন তিনি। বিধায়কের কথায়, “এই ঘটনা নিন্দার। আমি পুলিশকে বলেছি দোষীদের খুঁজে বের করে ব্যবস্থা নিতে।” একই সঙ্গে তিনি আরও অভিযোগ করেছেন, “তৃণমূল কংগ্রেসকে কলুসিত করতে এই ঘটনা ঘটানো হয়েছে। ” বিষ্যটি বিধায়কের গোচরে আসার পরে তৃণমূল কর্মীরাই ফরওয়ার্ড ব্লকের কার্যালয় থেকে তৃণমূলের পতাকা খুলে ফেলার ব্যবস্থা করে।