কলকাতা: নাগরিকত্ব সংশোধনী আইনের প্রতিবাদ করতে গিয়ে প্রাণ হারিয়েছেন ম্যাঙ্গালোরের দু’জন ব্যাক্তি। শনিবার সকালে নিহতদের পরিবারকে পাঁচ লক্ষ টাকার চেক পরিবারের হাতে তুলে দিয়েছেন দীনেশ ত্রিবেদী।

শনিবার দীনেশ ত্রিবেদীর নেতৃত্বে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়র নির্দেশে তৃণমূলের প্রতিনিধি দল কর্ণাটকের ম্যাঙ্গালোরে পৌঁছেছে।

ডিসেম্বর ১৯ তারিখে সিএএ এবং এনআরসি’র বিরুদ্ধে বিক্ষোভে গুলিবিদ্ধ হয়ে দুজন নিহত হন। তারা জালিল কুদ্রোলি (৪৯) এবং নওশীন বেনগ্রে (২৩)। মারা যান ভারতের কর্ণাটকের ম্যাঙ্গালোর শহরে। প্রতিবাদে অংশ নেওয়া একজন প্রত্যক্ষদর্শী বলেছেন, তাদের একজনের চোখে এবং অন্যজনের বুকে গুলি লাগে।

পুলিশ অভিযোগ করেছে যে, বিক্ষোভকারীরা তাদের ওপর পাথর দিয়ে আক্রমণ করেছিল এবং উত্তর ম্যাঙ্গালোরে থানায় আগুন দেওয়ার চেষ্টা করেছিল। পুলিশ কমিশনার পিএস হর্শা পুলিশি পদক্ষেপকে ‘শক্তির বৈধ ব্যবহার’ বলে অভিহিত করেছেন।

প্রতিবাদে অংশ নেওয়া প্রত্যক্ষদর্শীরা বলেন, পুলিশ নির্বিচারে গুলি চালায়। স্থানীয় নিউজ চ্যানেলগুলোর প্রকাশিত ভিডিওগুলোতে এমনও বলা হয়েছে যে, যারা শান্তিপূর্ণ মিছিলেও পুলিশ মারধর করেছে এবং পরে গুলি চালিয়েছে।