স্টাফ রিপোর্টার, কলকাতা: অনুব্রত মণ্ডলের গড়ে বিস্ফোরক অভিযোগ কংগ্রেসের৷ লোকসভা ভোটের পর সেসব পঞ্চায়েত এলাকায় তৃণমূল হেরেছে সেসব জায়গায় সমস্ত সরকারি পরিষেবা বন্ধ করে দিয়েছে তৃণমূলের কর্মীরা৷ মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে চিঠি দিয়ে এমনই অভিযোগ জানালেন বীরভূমের হাঁসনের কংগ্রেস বিধায়ক মিল্টন রশিদ৷

ভোটের রেজাল্ট বেরোনোর পর থেকেই বিজেপির বিরুদ্ধে হামলার অভিযোগ করছে শাসক দল তৃণমূল৷ ঘাসফুলের দলীয় কার্যালয় দখল থেকে তাদের কর্মীদের মারধর, বিজেপির বিরুদ্ধে একাধিক অভিযোগ করছে তৃণমূল৷এবার তাদের বিরুদ্ধেই ভোট পরবর্তী অশান্তি ছড়ানোর অভিযোগ উঠল৷ কংগ্রেস বিধায়ক মিল্টন রশিদের অভিযোগ, বীরভূমে যেসমস্ত পঞ্চায়েত, জেলা পরিষদে তৃণমূল হেরে গিয়েছে সেখানে পানীয় জলের লাইন কেটে দেওয়া হয়েছে৷টিউবওয়েল ভেঙে দেওয়া হয়েছে৷ এই তীব্র গরমে মানুষ জলের জন্য হাঁসফাঁস করছেন৷কেউ প্রয়োজনে সরকারি কোনও সার্টিফিকেট পাচ্ছেন না৷

মিল্টন বলেন, “বীরভূমের মানুষকে তো বেঁচে থাকতে হবে৷কিন্তু অনেকেই এই গরমে খাবার জলটুকু পাচ্ছেন না৷ বিজেপি বেশি ভোট পেয়েছে বলে সাধারণ মানুষ কেন সমস্ত ন্যায্য সরকারি পরিষেবা থেকে বঞ্চিত হবেন? এখন তো মনে হচ্ছে, বিজেপির থেকে তৃণমূল বেশি অশান্তি পাকাচ্ছে৷”

মুখ্যমন্ত্রীকে চিঠি দেওয়ার পরও যদি কোনও কাজ না হয় তাহলে বীরভূমে কংগ্রেস রাস্তায় নেমে আন্দোলন করবেন বলে হুঁশিয়ারি দিয়েছেন মিল্টন৷