স্টাফ রিপোর্টার, মালদহ: তৃণমূলের সভা ঘিরে গোষ্ঠী কোন্দলের অভিযোগ উঠল মালদহে। ঘটনাটি ঘটেছে, মালদহ জেলার হরিশ্চন্দ্রপুরে তৃণমূলের সভায় গোষ্ঠী কোন্দল, সভা করতে বাধা দেওয়ার অভিযোগ এবং সভা বানচালের চেষ্টার অভিযোগ উঠল দলের অপর গোষ্ঠীর বিরুদ্ধে। জানা গিয়েছে, রাজ্যের মন্ত্রীর সামনেই তৃণমূল কর্মীদের বিক্ষোভ চলে। যার ফলে চরম অস্বস্তিতে পড়ে জেলা নেতৃত্ব।

সূত্রের খবর, তৃণমূলের শাখা সংগঠন জয় হিন্দ বাহিনীর উদ্যোগে এনআরসির বিরোধিতা করে একটি সভা ডাকা হয় সোমবার। সভার আয়োজক আমিরুল ইসলামের অনুগামীদের অভিযোগ এই সভা বানচালের চেষ্টা করেছে হরিশ্চন্দ্রপুর ব্লকের তৃনমূলের সভাপতি তাজমুল হোসেনের অনুগামীরা। সভায় বহিরাগত ঢুকিয়ে উত্তেজনা সৃষ্টি করা হয়। পাশাপাশি বাড়ি বাড়ি গিয়ে এই সভায় যাতে কোনও মতেই তৃণমূল কর্মীরা না আসে সেই হুমকিও দেওয়া হয়।

এদিকে সভা শুরু হতেই তুণমুল উত্তেজনা ছড়ায় সভাস্থলে। কোনরকমে সভা ছেড়ে রাজ্যের মন্ত্রী গোলাম রাব্বানী ঘটনাস্থল থেকে বেরিয়ে যান। যদিও এই বিষয়ে সংবাদমাধ্যমের সামনে তিনি কোনও প্রতিক্রিয়া দিতে চাননি। শুধু তাই নয় মন্ত্রী বেরিয়ে যাওয়ার পরেও আবার ফের উত্তেজনা ছড়ায়।

ক্ষোভে ফেটে পড়ে তৃণমূল কর্মীদের একাংশ। এই ঘটনায় পুলিশকে পরিস্থিতি কোনরকমে সামাল দিতে হয়। এদিকে গণ্ডগোলের ব্যাপারে যাবতীয় অভিযোগ অস্বীকার করেছেন হরিশ্চন্দ্রপুর ১ নম্বর ব্লকের সভাপতি তাজমুল হোসেন। তিনি বলেন, ‘আমরা একত্রিত আছি’। যদিও তার অনুগামী হরিশ্চন্দ্রপুর পঞ্চায়েত সমিতির সভাপতি কোয়েল দাস, এলাকার দাপট তৃণমূল নেতা বুলবুল খান সহ অন্যান্য তৃণমূল নেতাদের মঞ্চে দেখা যায়নি।