নয়াদিল্লিঃ পুরো দমে চলছে সংসদ অধিবেশনের কাজ৷ এরই মধ্যে বুধবার তৃণমূল-কংগ্রেস ও শিবসেনা সাংসদরা বিভিন্ন ইস্যুতে আলোচনার দাবি নিয়ে পেশ করলেন জিরো আওয়ার নোটিস৷

সরকারি অনুদান প্রাপ্ত ৪২টি সংস্থায় ফের বিনিয়োগ বা অনুদান না দেওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে কেন্দ্র৷ কেন্দ্রের এই সিদ্ধান্তের বিরোধিতা করে তৃণমূল সাংসদ মানস ভূঁইয়া ও দোলা সেন এই প্রস্তাবে আলোচনার জন্য নোটিস পেশ করেন৷ তাঁদের দাবি দ্রুত এই বিষয়ে আলোচনার জন্য স্পীকার সুযোগ দিন৷

এদিন রাজ্যের বিভিন্ন সরকারি হাসপাতালে ডাক্তারদের ওপর নিগ্রহের বিরুদ্ধে নোটিস পেশ করেন তৃণমূল সাংসদ শান্তনু সেন। এদিন জিরো আওয়ার নোটিস পড়ে শিবসেনার পক্ষ থেকেও৷ শিবসেনা সাংসদ সঞ্জয় রাউত হাই-স্পিড বন্দে ভারত এক্সপ্রেস ট্রেনের উৎপাদনে বিলম্ব নিয়ে প্রশ্ন তোলেন।

উল্লেখ্য, রাজধানী দিল্লি থেকে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর নির্বাচনী কেন্দ্র বারাণসী ছুটবে এই ভারতীয় রেলের এই গর্বের ট্রেন বন্দে ভারত এক্সপ্রেস৷ এর আগে রেলমন্ত্রী পীযূষ গয়াল জানিয়ে ছিলেন, যেহেতু পুরোপুরি দেশীয় প্রযুক্তিতে নির্মিত হয়েছে, তাই এই ট্রেনের নাম দেওয়া হয়েছে বন্দে ভারত এক্সপ্রেস। সাংবাদিকদের তিনি জানান, এই ট্রেনের ভাবনা যখন প্রথম করা হয়, তার নাম হয় ট্রেন ১৮। কিন্তু এখন জনসাধারণের কাছ থেকে পাওয়া সুপারিশক্রমে নতুন নামকরণ করা হয়েছে৷ ট্রেন ১৮ পরিচিত হবে বন্দে ভারত এক্সপ্রেস নামে।

জিরো আওয়ার মূলত সংসদের উভয় হাউসে প্রশ্ন করার নির্ধারিত সময়। এই সময়ে সাংসদরা অগ্রিম দশদিনের বিনা নোটিশে গুরুত্বপূর্ন বিষয়গুলিতে আলোকপাত করা করতে পারেন স্পীকারের সামনে৷