স্টাফ রিপোর্টার, বারাকপুর: রাজনৈতিক হিংসার ঘটনায় উত্তেজনা ছড়াল উত্তর ২৪ পরগনার বারাকপুর লোকসভা কেন্দ্রের অন্তর্গত নৈহাটি পূর্ব রেল কলোনি এলাকায়। অভিযোগ তৃণমূল কংগ্রেস আশ্রিত দুষ্কৃতীরা নৈহাটির পূর্ব রেল কলোনি এলাকায় স্থানীয় বিজেপি কর্মীদের বাড়িতে ঢুকে হামলা চালায়, তাদের বাড়ি ঘর ভাঙচুর করে। এমনকি ওই অঞ্চলের সক্রিয় বিজেপি কর্মী তন্ময় সরকারের বাড়িতে ঢুকে তাদের পরিবারের সদস্যদের খুনের হুমকি দিয়েছে ওই দুষ্কৃতী দল বলে অভিযোগ৷

মঙ্গলবার ভোর রাতে এই দুষ্কৃতী তাণ্ডবের ঘটনা ঘটে বলে অভিযোগ। আক্রান্ত বিজেপি কর্মী তন্ময় সরকারের অভিযোগ, “বিষ্ণু অধিকারী, সঞ্জীব দাস, ওম প্রকাশ কাহারের নেতৃত্বে একদল দুষ্কৃতী আমার বাড়িতে ও দোকানে ভাঙচুর করেছে। ওরা এখন তৃণমূল ছেড়ে বিজেপিতে ঢোকার চেষ্টা করছে। আমরা দলের শীর্ষ নেতাদের বলে ওদের দলে ঢোকা আটকে দিয়েছি। ওরা সবাই কুখ্যাত দুষ্কৃতী, আমরা দীর্ঘদিন ধরে নৈহাটিতে বিজেপি দল করি। এই এলাকায় এখন তৃণমূল কংগ্রেস হেরে গেছে, ওদের এখন বিজেপিতে ঢুকতে প্রধানত আমরা বাঁধা হয়ে দাঁড়িয়েছি, তাই আমাদের উপর এই হামলার ঘটনা ঘটেছে ।”

বারাকপুর সাংগঠনিক জেলার সভানেত্রী ফাল্গুনী পাত্র বলেন, “তৃণমূল আশ্রিত দুষ্কৃতীরা এই হামলা চালিয়েছে, যারা হামলা করেছে, তারা বিজেপির লোক নয়৷ আমরা পুলিশকে বলেছি অপরাধীদের দ্রুত গ্রেফতার করতে।”

এদিকে নৈহাটি পূর্ব রেল কলোনি এলাকায় বিজেপি কর্মীদের উপর হামলার ঘটনায় তৃণমূলের কেউ জড়িত নয় বলে সাফ জানিয়ে দিয়েছেন নৈহাটির তৃণমূল নেতা অশোক চট্টোপাধ্যায়। তিনি বলেন, “বিজেপির গোষ্ঠী কোন্দলে এই ঘটনা ঘটেছে। ওদের কে নেতা হবে? কে পুরসভার কন্ট্রাকটর হবে? কে এলাকায় তোলা তুলবে সেই ক্ষমতা দখলের লড়াই শুরু হয়েছে। এই ঘটনায় তৃণমূলের কেউ জড়িত নেই।”

এদিকে এই ঘটনায় আতঙ্কিত আক্রান্ত বিজেপি কর্মীরা। গোটা ঘটনার তদন্তে নেমেছে নৈহাটি থানার পুলিশ। এই ঘটনায় এখনও পুলিশ কাউকে গ্রেফতার করতে পারেনি।