স্টাফ রিপোর্টার, বহরমপুর: তৃতীয় দফায় মুর্শিদাবাদে ভোট শান্তিপূর্ণভাবে হয়নি৷ বোমাবাজি থেকে শুরু করে শূন্যে গুলিও পর্যন্ত চলেছে৷ তারপরেও ভোট বয়কটের হুমকি দিয়ে মুর্শিদাবাদ জেলা বিজেপির কার্যালয়ে নকশালবাদিদের প্রচারের চেষ্টা চলছে। অভিযোগের আঙুল শাসক দলের বিরুদ্ধে।

বুধবার বহরমপুরে বিজেপির জেলা কার্যালয়ে ভোট বয়কটের হুমকি দেওয়ার পোস্টার দেখা যায়৷ পোস্টারে লেখা ছিল ‘‘লুটেরাদের অনুচর নির্বাচিত করার লোকসভা ভোট, বয়কট কর জনযুদ্ধে আগে বাড়ো৷’’ আর এই পোস্টারকে ঘিরে ব্যাপক উত্তেজনা ছড়ায় এলাকায়।

শুধু যে জেলা কার্যালয়ে পোষ্টার মারা হয়েছে তা নয়। পোষ্টার মারা হয়েছে জেলা কার্যালয়ের সামনে লাগানো বিজেপি নেতা অমিত শাহ, বিজেপির রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষের ছবিতেও। এই ঘটনায় বহরমপুর থানায় লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছে জেলা বিজেপি নেতৃত্ব। পুলিশ গিয়ে এই হুমকির পোস্টারগুলি ছিঁড়ে দেয়৷

এই ঘটনায় বিজেপির জেলা সাধারণ সম্পাদক অপন চন্দ্র জানান, এই পোস্টারগুলি শাসক দল ভয় দেখাতে রাতের অন্ধকারে পার্টি অফিসে লাগিয়ে গিয়েছে। তারা ভয় পেয়ে এই কাজ করছে। ভয় দেখালেও আমরা এই হুমকিতে ভয় পাই না। তাই এই ঘটনায় আমরা পুলিশের পাশাপাশি নির্বাচন কমিশনেও যাব।

যদিও বিজেপির যাবতীয় অভিযোগ অস্বীকার করেছে জেলা তৃণমূল কংগ্রেস নেতৃত্ব। মুখপাত্র অশোক দাস জানিয়েছেন, আমরা এই ধরণের ঘটনার সঙ্গে যুক্ত নই। বিজেপির কোন ক্ষমতা নেই, কর্মী নেই৷ তাই কেন আমরা ভয় পেয়ে এমন ঘটনা ঘটাব।

মঙ্গলবার শেষ হয়েছে তৃতীয় দফার লোকসভা নির্বাচন। মুর্শিদাবাদ ও জঙ্গিপুর লোকসভা কেন্দ্রের ভোট শেষ হয়েছে৷ আগামী ২৯ এপ্রিল বহরমপুর লোকসভা কেন্দ্রে নির্বাচন হবে। তার ঠিক কয়েক দিন আগেই জেলা বিজেপি কার্যালয়ে হুমকি পোস্টারকে ঘিরে একে অপরকে দোষারোপের পালাও শুরু হয়েছে।