প্রতীতি ঘোষ, বারাকপুর: ফের উত্তর ২৪ পরগনার বারাকপুর শিল্পাঞ্চলে শ্রমিক অসন্তোষের জেরে কাজ বন্ধের নোটিশ ঝোলাল কারখানা কর্তৃপক্ষ । এবার কাজ বন্ধের নোটিশ দেওয়া হল টিটাগড়ের এম্পায়ার জুটমিলে। আচমকা কারখানা বন্ধের জেরে কাজ হারালেন প্রায় ৪ হাজার শ্রমিক। শ্রমিকদের উপর্যুপরি বিক্ষোভের জেরে মিলের উৎপাদন ব্যাহত হচ্ছে, কারখানায় কাজের পরিবেশ নেই, এই কারণ দেখিয়ে জুটমিল বন্ধের নোটিশ ঝোলাল কর্তৃপক্ষ।

মঙ্গলবার সকালে টিটাগড়ের এম্পায়ার জুটমিলে কাজে গিয়ে মিল বন্ধের নোটিশ ঝুলতে দেখেন শ্রমিকরা। কাজ বন্ধের নোটিশ দেখে ক্ষোভে ফেটে পড়েন শ্রমিকরা ।জুটমিলের শ্রমিকদের অভিযোগ, মিল কর্তৃপক্ষ শ্রমিকদের সঙ্গে প্রতারণা করছে। দাবি নিয়ে কথা বলার জেরেই কর্তৃপক্ষের রোষের মুখে পড়েছেন শ্রমিকরা। তার জেরেই জুটমিল বন্ধের নোটিশ জারি করা হয়েছে ।

এম্পায়ার জুমিলের শ্রমিকরা আরও জানান, সোমবার জুটমিলে কর্মরত অবস্থায় দুর্ঘটনায় মারা যান দিলীপ মণ্ডল নামে এক শ্রমিক। দিলীপ মণ্ডল নামে ওই শ্রমিক কাজ করতে গিয়ে দুর্ঘটনায় মারাত্মকভাবে জখম হন । সহকর্মীরা জখম ওই শ্রমিককে দ্রুত চিকিৎসার জন্য নিয়ে যান কামারহাটি ইএসআই হাসপাতালে। হাসপাতালের তরফে জানানো হয়, টিটাগড় এম্পায়ার জুটমিল কর্তৃপক্ষ শ্রমিকদের ইএসআই বাবদ সরকারকে প্রয়োজনীয় টাকা জমা দেয়নি । তাই ওই শ্রমিকের চিকিৎসা ইএস আই হাসপাতালে করা যাবে না। বাধ্য় হয়ে শ্রমিকরা জখম দিলীপ মণ্ডলকে নিয়ে যান বারাকপুর বি এন বসু মহকুমা হাসপাতালে । সেখানেই মৃত্য়ু হয় ওই শ্রমিকের।
দুর্ঘটনায় জখম শ্রমিকের মৃত্য়ুর পরই জুটমিলে উত্তেজনা ছড়িয়ে পড়ে । শ্রমিকরা একজোট হয়ে মিল কর্তৃপক্ষের কাছে গিয়ে বিক্ষোভ দেখান। প্রতি মাসে ইএসআই বাবদ বেতন থেকে টাকা কাটলেও কেন সেই টাকা নির্দিষ্ট খাতে জমা হয়নি তা নিয়ে কর্তৃপক্ষের কাছে জানতে চান শ্রমিকরা। শ্রমিকদের প্রশ্নের সদুত্তর দেয়নি মিল মালিক কর্তৃপক্ষ।
এরপর মঙ্গলবার থেকেই মিলে তালা ঝুলিয়ে দেয় মিল কর্তৃপক্ষ। আচমকা জুটমিল বন্ধে মাথায় হাত শ্রমিকদের। মিল কর্তৃপক্ষের বিরুদ্ধে ক্ষোভে ফেটে পড়েন শ্রমিকরা। অবিলম্বে মিল চালুর দাবিতে মিলের গেটেই বিক্ষোভ শুরু করেন শ্রমিকরা।

পপ্রশ্ন অনেক: নবম পর্ব

Tree-bute: আমফানের তাণ্ডবের পর কলকাতা শহরে শতাধিক গাছ বাঁচাল যারা