ঢাকা: শারদোৎসবের মাঝে বড়সড় নৌকাডুবি বাংলাদেশে। তিস্তা নদীতে যাত্রী পারাপারের সময় ডুবে গেল খেয়া নৌকা। দুর্ঘটনায় অন্তত ১০ জন নিখোঁজ। রবিবার দুপুরে রংপুর বিভাগের কুড়ি উপজেলার বুড়িরহাটে নৌকা ডুবে যায়। অতি সম্প্রতি পশ্চিমবঙ্গের মালদহ ও উত্তর দিনাজপুরের মাঝে মহানন্দা নদীতে ডুবে যায় একটি নৌকা। তাতে এখনও বহু যাত্রী নিখোঁজ। নিহতের সংখ্যা ১০-১২ জন।

ভারতের দিকে মহানন্দায় এই দুর্ঘটনার পর পরই বাংলাদেশে প্রবাহিত তিস্তার বুকে হল নৌকাডুবি। কুড়িগ্রামের রাজারহাট থানার ওসি কৃষ্ণ চন্দ্র সরকার জানান, বুড়িরহাট খেয়া ঘাট থেকে ২৫ যাত্রী নিয়ে একটি নৌকা তিস্তা পাড়ি দিয়েছিল। ডুবে যাওয়ার পর জনা ১৫ যাত্রী সাঁতরে তীরে উঠতে পারেন। ১০ জনের কোনও খোঁজ নেই। নৌকার মাঝি আকবর আলী জানান, বাঁধের মাথায় ধাক্কা লেগে নৌকার নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে ফেলি।

এর পর প্রবল স্রোতে নৌকাটি ডুবে যায়। হিমালয় থেকে উৎপত্তি হয়ে ভারতের সিকিম, পশ্চিমবঙ্গের জলপাইগুড়ি জেলা পেরিয়ে তিস্তা নদী ঢুকেছে বাংলাদেশে। এরপর রংপুর জেলার মধ্যে দিয়ে প্রবাহিত হয়ে তিস্তা নদী মিশেছে ব্রহ্মপুত্রের সঙ্গে। গত কয়েকদিন হিমালয় সংলগ্ন এলাকায় বৃষ্টির ফলে প্রবল স্রোতে বইছে তিস্তা। ফলে উদ্ধার কাজে সময় লাগছে। রংপুর থেকে দমকলের ডুবুরি দলকে তলব করা হয়েছে।