কলকাতা: আপনার প্রিয় বান্ধবীর বিয়ের আগে তাকে শেষবারের মতো নিজের করো পাওয়ার মুহূর্ত এটাই। তাই এই পার্টিতে কোনো ভুল রাখলে চলবে না। কারণ এরপর কোনো ভুল হলে সে মনে আক্ষেপ নিয়েই চলে যাবে শ্বশুরবাড়ি। আবার আপনিও আর সময় বা সুযোগ পাবেন না তার জন্যে আবার সব আয়োজন করে ব্যাচেলর পার্টি রাখতে। তবে এই সময়ের আনন্দটাকে মাথায় রেখেই আয়োজন করবেন। এমন বিশাল কিছু করবেন না যাতে আয়োজনের দিকে নজর রাখতে রাখতেই সময় চলে গেল আপনার।

১. যেখানে আয়োজন করবেন সেই জায়গা যেন খোলামেলা হয় আর বেশি জায়গা জুড়ে থাকে সেটা মাথায় রাখবেন। কারণ সেখানে শুধু আপনারা থাকবেন না, আপনাদের আরো কাছের লোকেরা বা বন্ধুরাও থাকবে। তাই বেশি জায়গা না থাকলে দম বন্ধ করা পরিবেশ তৈরী হয় না। আবার নিজেদের এলাকা থেকে অনেকটা দূরের জায়গা বাছতে পারেন যেখানে দুদিনের জন্যে সময় কাটিয়ে এলেন।

 

২. তার পছন্দকে মাথায় রেখে আয়োজন করবেন। সে কি খেতে ভালোবাসে বা উপহারে কি চায় তা মাথায় রাখবেন। হতে পারে আপনি এমন কিছু দিলেন যা তার কোনো কাজেই লাগলো না, তাহলে সেটা তো বেকার হয়ে গেলো। তাই এমন কিচৰু দিন যাতে সে পরেও তার ব্যবহার করতে পারে আর আপনার কথা মনেও রাখবে।

৩. সারপ্রাইজ রাখতে ভুলবেন না। সে একটা নতুন জীবনে যাচ্ছে প্রবেশ করতে, তাই তার আগে তাকে পুরোনো দিনের কথা মনে করিয়ে দিতে পারেন। কিছু ছবির অ্যালবাম দিতে পারেন যেখানে আপনি ও সে রয়েছে বা কেকের মধ্যে ছবি দিয়ে অনেক সুন্দর কেক পাওয়া যায় তা কাটাতে পারেন। চারিদিকে বন্ধুদের ছবি দিয়ে তাকে মাঝখানে রাখতে পারেন। বেলুন বা ফুল দিয়েও সাজাতে পারেন। আপনারা সকলে নিজেদের পোশাকের রঙ মিলিয়ে পোশাক পরতে পারেন। ব্যাচেলর পার্টির স্পেশাল পোশাক একটু স্পেশাল হয়ে উচিত। তাই এই লিংকে ক্লিক করুন আপনাদের স্পেশাল দিনে মনের মতো পোশাক পরতে।

৪. আপনার বন্ধুর পরিবারকে ভুলে চলবে না। এই সুন্দর সময়ে পরিবারের কাউকেও সঙ্গে নিতে পারেন যার সঙ্গে আপনারাও বেশ খোলামেলা মিশতে পারেন।

লাল-নীল-গেরুয়া...! 'রঙ' ছাড়া সংবাদ খুঁজে পাওয়া কঠিন। কোন খবরটা 'খাচ্ছে'? সেটাই কি শেষ কথা? নাকি আসল সত্যিটার নাম 'সংবাদ'! 'ব্রেকিং' আর প্রাইম টাইমের পিছনে দৌড়তে গিয়ে দেওয়ালে পিঠ ঠেকেছে সত্যিকারের সাংবাদিকতার। অর্থ আর চোখ রাঙানিতে হাত বাঁধা সাংবাদিকদের। কিন্তু, গণতন্ত্রের চতুর্থ স্তম্ভে 'রঙ' লাগানোয় বিশ্বাসী নই আমরা। আর মৃত্যুশয্যা থেকে ফিরিয়ে আনতে পারেন আপনারাই। সোশ্যালের ওয়াল জুড়ে বিনামূল্যে পাওয়া খবরে 'ফেক' তকমা জুড়ে যাচ্ছে না তো? আসলে পৃথিবীতে কোনও কিছুই 'ফ্রি' নয়। তাই, আপনার দেওয়া একটি টাকাও অক্সিজেন জোগাতে পারে। স্বতন্ত্র সাংবাদিকতার স্বার্থে আপনার স্বল্প অনুদানও মূল্যবান। পাশে থাকুন।.

করোনা পরিস্থিতির জন্য থিয়েটার জগতের অবস্থা কঠিন। আগামীর জন্য পরিকল্পনাটাই বা কী? জানাবেন মাসুম রেজা ও তূর্ণা দাশ।