মুম্বই: বিশ্বকাপে পাক ম্যাচ বয়কট নয়, বরং পাকিস্তানকে হারিয়ে পুলওয়ামার ‘বদলা’ নেওয়ার পক্ষে সচিন তেন্ডুলকর৷ বিশ্বকাপে ভারত-পাক ম্যাচ নিয়ে সরকার যা সিদ্ধান্ত নেবে তাতে তিনি সহমত বলেও জানান ‘ক্রিকেটঈশ্বর’৷

পুলওয়ামা হামলায় ৪০ জন ভারতীয় জওয়ান শহিদ হওয়ার পর পাকিস্তানের বিরুদ্ধে ম্যাচ বয়কটের দাবি তুলেছেন অনেকেই৷ আসন্ন বিশ্বকাপে পাকিস্তানের বিরুদ্ধে ভারতের ম্যাচ বয়কটের দাবি করেন টিম ইন্ডিয়ার প্রাক্তন অফ-স্পিনার হরভজন সিং৷ পাকিস্তানের বিরুদ্ধে না-খেলেও ভারত বিশ্বকাপ জেতার ক্ষমতা রাখে বলে মনে করেন ভাজ্জি৷ একই মত প্রাক্তন ভারত অধিনায়ক সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায়েরও৷

আরও পড়ুন:আইপিএলে উদ্বোধনী অনুষ্ঠান বন্ধ, শহিদ পরিবারকে আর্থিক সাহায্য বোর্ডের

কিন্তু টিম ইন্ডিয়ায় তাঁর দুই প্রাক্তন সতীর্থ সৌরভ-ভাজ্জির সঙ্গে এ ব্যাপারে একমত নন সচিন৷ বরং উলটো পথে গিয়ে বিশ্বকাপে বরাবরের মতো পাকিস্তানকে হারানোর পক্ষে লিটল মাস্টার৷ বিশ্বকাপ ভারতের পাক ম্যাচ বয়কট সম্পর্কে শুক্রবার টুইটারে সচিন লেখেন, ‘বিশ্বকাপে ভারত বরাবর পাকিস্তানকে হারিয়ে এসেছে৷ আবারও সময় এসেছে হারানোর৷ ব্যক্তিগতভাবে পাকিস্তানকে দু’ পয়েন্ট দিয়ে টুর্নামেন্টে এগিয়ে দিতে আমি ঘৃণা করি৷ তবে ভারত সবার আগে৷ এ ব্যাপারে দেশ যা সিদ্ধান্ত নেবে তার প্রতি হার্দিক সমর্থন থাকবে৷’

অর্থাৎ বিশ্বকাপ ভারত-পাক ম্যাচ নিয়ে সুনীল গাভাস্করের কথার প্রতিধ্বনি শোনা গেল সচিনের গলায়৷ বিশ্বকাপে ভারতের পাক ম্যাচ বয়কট নিয়ে গাভাস্কর বৃহস্পতিবার জানিয়েছিলেন, ‘বিশ্বকাপে পাকিস্তানকে ম্যাচ ছেড়ে দিয়ে ওরা জিতে যাবে৷ কিন্তু বিশ্বকাপে ভারত বরাবর পাকিস্তানকে হারিয়েছে৷ সুতরাং এবারও হারিয়ে দু’ পয়েন্ট নেওয়া উচিত৷’ পাক ম্যাচ জিতে পুলওয়ামার শহিদ জওয়ানদের শ্রদ্ধা জানানো উচিত বলে মন করেন প্রাক্তন ভারতীয় ওপেনার৷

আরও পড়ুন: বিশ্বকাপে ভারত-পাক ম্যাচ নিয়ে সিন্ধান্ত নিতে পারল না বোর্ড

আসন্ন বিশ্বকাপে ভারত-পাক মহারণ হওয়ার কথা ১৬ জুন ম্যাঞ্চেস্টারে৷ ওল্ড ট্র্যাফোর্ডে ভারত-পাকিস্তান লড়াই বিশ্বকাপের ইউএসপি৷ কিন্তু পাক মদতপুষ্ট জঙ্গি সংঘঠন জইশ-ই মহম্মদের পুলওয়ামা হামলার পর বিশ্বকাপে ভারত-পাক ম্যাচ সংশয়ে৷ কারণ বিশ্বকাপে পাকিস্তানের বিরুদ্ধে ভারতের ম্যাচ বয়কটের দাবি উঠেছে সারা দেশে৷ সুত্রের খবর, সরকারের তরফে বোর্ডের উপর বিশ্বকাপে পাক ম্যাচ বয়কটের নির্দেশ দেওয়া হয়৷ কিন্তু বিশ্বকাপে ম্যাচ বয়কট করলে আইসিসি-র শাস্তির মুখে পড়তে হতে পারে, এ কথা মাথায় রেথে তড়িঘড়ি কোনও সিদ্ধান্তে পথে হাঁটতে চাইছে না বিসিসিআই৷

বৈঠকের পর বিনোদ রাই জানান, আমরা সরকারের সঙ্গে কথা বলছি৷ কিন্তু ১৬ তারিখ ভারত-পাকিস্তান ম্যাচ নিয়ে আমরা এখনই কোনও সিদ্ধান্ত নিচ্ছি না৷’ তবে আইসিসি-কে যে বিসিসিআই চিঠি দিচ্ছে, তা পরিষ্কার করে দেন সিওএ প্রধান৷ বিনোদ রাই আরও বলেন, ‘আমরা দু’টি বিষয় আইসিসি-কে জানাব৷ প্রথমত বিশ্বকাপের সময় ক্রিকেটারদের আরও বেশি নিরাপত্তা দিতে হবে৷ দ্বিতীয়ত, জঙ্গিদের মদত দেওয়া কোনও দেশের সঙ্গে ক্রিকেটীয় সম্পর্ক রাখার পক্ষে নয় ভারত৷’

আরও পড়ুন: বিশ্বকাপে পাক ম্যাচ বয়কটে নির্বাসিত হতে পারে ভারত