স্টাফ রিপোর্টার,মালদহ: এবার জনপ্রিয় টিকটকের ঠেলায় প্রাণ গেল এক যুবকের। তিন বন্ধু একসঙ্গে টিকটক ভিডিও করতে গিয়ে ফুলহার নদীর জলে তলিয়ে মৃত্যু হল বছর কুড়ির এক যুবকের। ঘটনাটি ঘটেছে, বিহার ও বাংলা সীমান্ত লাগোয়া লাভা ও দিল্লি দেওয়ানগঞ্জ এর মধ্যবর্তী ফুলহার ব্রীজের ঘাটে।

জানা গিয়েছে, মৃত যুবকের নাম সেলিম আক্তার। বাড়ি মালদহের হরিশচন্দ্রপুর থানার অন্তর্গত কুমেদপুর এলাকার দক্ষিণ তালগ্রামে।ফলে এই ঘটনার জেরে ওই এলাকায় ব্যাপক চাঞ্চল্য ছড়িয়ে পড়ে এবং গভীর শোকের ছায়া নেমে আসে মৃত যুবকের পরিবারে।

যদিও এই ঘটনায় ওই যুবককে খুন করা হয়েছে বলে বাকি দুই যুবকের বিরুদ্ধে এমনটাই অভিযোগ তোলে মৃতের পরিবার।

মৃতের পরিবার সূত্রে জানা গিয়েছে,সোমবার দুপুরে নতুন সাদলিচক গ্রামের বাসিন্দা অসীম ও বাপি মৃত সেলিম আক্তারকে টিকটক ভিডিও করার নাম করে ফুলহার নদীতে নিয়ে যায়।সেখানে স্নান করার নাম করে তাকে জলের মধ্য চেপে ধরে খুন করে বাপি ও অসীম বলে অভিযোগ।

এদিকে ফুলহার নদী সংলগ্ন স্থানীয়রা জানিয়েছেন, এদিন দুপরে ওই তিন যুবক নদীতে একসঙ্গে স্নান করতে নামে। কিছুক্ষন পরে দুই যুবক নদী থেকে উঠে জামা কাপড় পরে বাড়ির উদ্দেশ্যে রওনা দেয় তারা।

ওই সময় স্থানীয়রা ওই দুই যুবককে বাঁকি আরও এক জনের কথা জিজ্ঞাসা করলে তাদের কথায় অসঙ্গতি ধরা পড়ে। ফলে স্থানীয়রা দুই যুবককে আটক করে খবর দেয় বিহার পুলিশকে। খবর পেয়ে ঘটনা স্থলে হাজির হয় বিহারের লাভা ফাঁড়ির পুলিশ।

পুলিশি জিজ্ঞাসাবাদে উঠে আসে জলে তলিয়ে যাওয়া নিখোঁজ যুবকের খবর। এরপর ডুবুরি নামিয়ে নদীতে শুরু হয় তল্লাশী। খবর দেওয়া হয় পরিবারে। খবর পেয়ে সেখানে ছুটে যায় পরিবার পরিজন সহ স্থানীয়রা। বিকেল থেকে রাত পর্যন্ত নদীতে তল্লাশী চালিয়ে কোনও সন্ধান মেলেনি ওই যুবকের।

এদিকে মঙ্গলবার সকাল থেকে ওই যুবকের খোঁজে নদীতে তল্লাশী শুরু করলে এদিন দুপুর সাড়ে ১২ টা নাগাদ মৃত দেহটি ভেসে উঠতে দেখেন স্থানীয়রা। এই ঘটনায় বিহার পুলিশ মৃতদেহটি উদ্ধার করে ময়নাতদন্তে পাঠানোর পাশাপাশি গোটা বিষয়টি খতিয়ে দেখে ঘটনার তদন্ত শুরু করেছে।

কলকাতার 'গলি বয়'-এর বিশ্ব জয়ের গল্প