ইন্টারনেট থেকে প্রাপ্ত ছবি

নয়াদিল্লিঃ রাজধানী দিল্লিতে আগামী ২ ঘণ্টার মধ্যে প্রবল ঝড় বৃষ্টির সম্ভবনা রয়েছে। পূর্বাভাসে এমনটাই জানিয়েছে মৌসম ভবন। জানানো হয়েছে দিল্লির দক্ষিণ পশ্চিম এবং এবং উত্তর পশ্চিম অংশে প্রবল ঝড় বৃষ্টি হতে পারে। সে ক্ষেত্রে ঝোড়ো হাওয়ার গতিবেগ ২০-৪০ কিলোমিটার প্রতি ঘণ্টা পর্যন্ত হতে পারে জানানো হয়েছে মৌসম ভবনের তরফে।

তাছাড়াও জানানো হয়েছে দিল্লির আশেপাশের জায়গাগুলিতেও হতে পারে এই ঝড়বৃষ্টি। অর্থাৎ গুরুগ্রাম, হরিয়ানা সহ কষলি, ছাকরি দাদ্রি এলাকাতেও শনিবার বিকেলের মধ্যে তীব্র ঝড়বৃষ্টির সম্ভবনা রয়েছে বলে পূর্বভাসে জানাচ্ছে মৌসম ভবন। আর সেই কারণে আপাত ভাবে ওই সকল এলাকাগুলি সতর্ক করা হয়েছে। তবে রাজধানী দিল্লিতে শুক্রবারেই হালকা বৃষ্টি হয়েছে।

আর সেই সময় রাজধানীর তাপমাত্রা ছিল ৩৬.৮ ডিগ্রি সেলসিয়াসের কাছাকাছি। আবহাওয়া দফতরের তরফে আগেই জানানো হয়েছিল আগামী ৩-৪ দিনের মধ্যে উত্তর প্রদেশের পূর্ব অংশে প্রবল বৃষ্টিপাত হতে পারে। তার সঙ্গে আগামী ২৮-২৯ জুনের মধ্যে সমগ্র উত্তর প্রদেশে শুরু হতে পারে প্রবল ঝড়বৃষ্টি।

আবহাওয়াবিদরা জানিয়েছিলেন শুক্রবারের মধ্যে দেশে বর্ষা প্রবেশ করবে। তবে তা স্বাভাবিকের থেকে কিছু আগেই হবে বলে জানিয়েছিলেন বিশেষজ্ঞরা। প্রায় ১২ দিন আগেই বর্ষা প্রবেশ করবে বলে জানানো হয়েছিল। আর কেবলমাত্র আবহাওয়ার পরিবর্তনের কারণেই ১২ দিন আগে বর্ষা প্রবেশের কথা জানিয়েছিলেন আবহাওয়াবিদেরা।

মূলত ৩ ধরনের আবহাওয়ার পরিবর্তনের কারণে বর্ষা আগেই প্রবেশ করেছে বলে জানানো হয়েছে। আর সেই কারণেই পশ্চিম রাজস্থানের শুষ্ক অঞ্চলগুলিতেও বৃষ্টি হয়েছে। এছাড়া বাকি বৃষ্টি হয়েছিল পঞ্জাব এবং হরিয়ানাতেও।

এও জানা গিয়েছে সেন্ট্রাল পাকিস্তানের উপরে রয়েছে একটি ঘূর্ণাবর্ত। একই সঙ্গে আরও একটি ঘুর্নাবর্ত রয়েছে উত্তর পূর্ব রাজস্থানের উপরে। আর সেই কারণে রাজস্থান সহ হরিয়ানা সহ বেশ কয়েকটি জায়গাতে নিম্নচাপের সমূহ সম্ভবনা রয়েছে। আর তার ফলেই অতি শুষ্ক অঞ্চলগুলিতেও ঝড় বৃষ্টি হয়েছে বলে জানিয়েছেন মৌসম ভবন প্রধান কে সাথি দেবী।

সপ্তম পর্বের দশভূজা লুভা নাহিদ চৌধুরী।