নয়াদিল্লি: দেশজুড়ে চলছে সিএএ নিয়ে বিক্ষোভ। রাস্তায় নেমে প্রতিবাদে বহু মানুষ। আর এরই মধ্যে বাজেট পেশ করছেন কেন্দ্রীয় অর্থমন্ত্রী নির্মলা সীতারমণ। ২০২০-এর এই বাজেট মোদী সরকারের দ্বিতীয় বাজেট পেশ। শনিবার সকাল ১১ টা থেকে বাজেট পেশ শুরু করেন নির্মলা সীতারমণ। একটি কাশ্মীরি কবিতা পাঠ ও প্রাক্তন কেন্দ্রীয় মন্ত্রী অরুণ জেটলির প্রতি শ্রদ্ধার্ঘ জানিয়ে বাজেট পেশ শুরু করেন তিনি।

নির্মলা দেবী জানান, তিনটি কেন্দ্রীয় ভাবনার ওপর ভিত্তি করেই এই বাজেটের প্রস্তাব তৈরি করা হয়েছে। জীবন যাত্রার মান উন্নত করতে উচ্চাভিলাষী ভারত, অর্থনৈতিক উন্নয়ন: সকলের আর্থিক উন্নতি এবং যত্নশীল সমাজ, এই তিনটি ধারণাই এই বাজেটের মূল ভিত্তি বলে জানান অর্থমন্ত্রী।

এই নিয়ে দ্বিতীয়বার বাজেট পাশ করছেন অর্থমন্ত্রী নির্মলা সীতারমণ। এবারের বাজেটে কৃষিভিত্তিক মানুষের জন্য বড়সড় ঘোষণা করেছেন নির্মলা দেবী। তিনি জানিয়েছেন, ২ লক্ষ কৃষককে পাম্প দেওয়া হবে। পাশাপাশি সারা দেশে পুরোনো মিটার বাতিল করা হবে বলেও জানানো হয়েছে। বলা হয়েছে, চালু হবে প্রিপেইড মিটার, অর্থাৎ আগে টাকা দিলে তবেই মিলবে বিদ্যুৎ।

পাশাপাশি এবারের বাজেটে শিক্ষাখাতে ৯৯ হাজার ৩০০ কোটি টাকা বিনিয়োগের কথা ঘোষণা করা হয়েছে। জানানো হয়েছে, দেশজুড়ে মোট ১০০ টি এয়ারপোর্ট তৈরি করা হবে। যে জেলা হাসপাতালগুলি রয়েছে, সেগুলিকে মেডিকেল কলেজে উন্নতীকরণ করা হবে বলে বাজেট ঘোষণায় জানিয়েছেন নির্মলা দেবী।

শিক্ষাখাতে ৯৯ হাজার ৩০০ কোটি টাকা বরাদ্দের পাশাপাশি স্বচ্ছ ভারতের যোজনায় ১২ হাজার ৩০০ কোটি, প্রধানমন্ত্রী জল জীবন মিশনে ৩.৬ কোটি ও প্রধানমন্ত্রী জন আরোগ্য যোজনাতে ৬৯ হাজার কোটি টাকা বরাদ্দ করা হয়েছে বলে জানানো হয়েছে।