দুবাই: ম্যাচ ফিক্সিং’য়ের দায়ে অভিযুক্ত অন্ততপক্ষে ৩ জন শ্রীলঙ্কান ক্রিকেটার। ঘটনার তদন্ত চালাচ্ছে বিশ্ব ক্রিকেটের নিয়ামক সংস্থা আইসিসি। বুধবার এমনই চাঞ্চল্যকর তথ্যের কথা স্বীকার করে নিয়েছেন দ্বীপরাষ্ট্রের ক্রীড়ামন্ত্রী দালাস আলাহাপ্পেরুমা।

তবে তারা বর্তমান নাকি প্রাক্তন ক্রিকেটার, সে সম্পর্কে কিছু খোলসা করে জানাতে চাননি শ্রীলঙ্কার ক্রীড়ামন্ত্রী। পাশাপাশি সাম্প্রতিক সময়ে ক্রিকেট চারিত্রিক বৈশিষ্ট্য এবং শৃঙ্খলার অধঃপতনের জন্য দুঃখপ্রকাশ করেছেন তিনি। দেশের ক্রীড়ামন্ত্রী খোলসা করে কিছু না জানালেও শ্রীলঙ্কা ক্রিকেট বোর্ডের পক্ষ থেকে নিশ্চিত করা হয়েছে যে, বর্তমান কোনও ক্রিকেটার এই ম্যাচ ফিক্সিং’য়ের সঙ্গে যুক্ত নয়।

শ্রীলঙ্কা ক্রিকেট বোর্ডের তরফ থেকে এক বিবৃতি দিয়ে জানানো হয়েছে, ‘তিন ক্রিকেটারের নামে আইসিসি’র শৃঙ্খলারক্ষা কমিটি তদন্ত শুরু করেছে বলে ক্রীড়ামন্ত্রী যে তথ্য দিয়েছেন আমরা নিশ্চিত সেই তিনজন ক্রিকেটার কোনওভাবেই বর্তমান জাতীয় দলের ক্রিকেটার নন, এরা প্রত্যেকেই প্রাক্তন ক্রিকেটার।’ গড়াপেটায় যুক্ত তিন ক্রিকেটারের প্রসঙ্গ ছাড়াও সম্প্রতি হেরোইন রাখার দায়ে গ্রেফতার হওয়া ফাস্ট বোলার শেহান মাদুশাঙ্কা প্রসঙ্গে নিজের মতামত পোষণ করেন ক্রীড়ামন্ত্রী দুলাস আলাহাপ্পেরুমা।

মাদুশাঙ্কাকে নিয়ে বলতে গিয়ে ক্রীড়ামন্ত্রী বলেন, ‘এটা ভীষণই দুঃখজনক ঘটনা, দেশের অনেক প্রত্যাশা ছিল ওর প্রতি।’ উল্লেখ্য, গত সপ্তাহে নিষিদ্ধ মাদক সহ পুলিশের জালে ধরা পড়েন অভিষেক ওয়ান-ডে ম্যাচে হ্যাটট্রিকধারী সিংহলি ফাস্ট বোলার শেহান মাদুশাঙ্কা। ঘটনার অনতিপরেই মাদুশাঙ্কাকে সমস্তরকম চুক্তি থেকে সরিয়ে দেয় শ্রীলঙ্কা ক্রিকেট বোর্ড। একইসঙ্গে সাম্প্রতিক সময়ে তলানিতে চলে যাওয়া স্কুল ক্রিকেটের মান ফিরিয়ে আনার ব্যাপারেও উদ্যোগী শোনায় আলাহাপ্পেরুমাকে।

সাম্প্রতিক সময়ে দেশের ক্রিকেটকে তৃণমূল স্তরে আরও শক্তিশালী করার উদ্যোগ গ্রহণ করেছেন দ্বীপরাষ্ট্রের তারকা প্রাক্তন ক্রিকেটাররাও। এব্যাপারে প্রধানমন্ত্রী মাহিন্দ্রা রাজাপক্ষের সঙ্গে সাক্ষাৎও করেছেন সনথ জয়সূর্য, মাহেলা জয়বর্ধনে, কুমার সঙ্গাকারারা।

Proshno Onek II First Episode II Kolorob TV