কলকাতা: একই দিনে পৃথক দুটি ঘটনায় সপরিবারে আত্মঘাতী চার, জখম তিন৷ সোমবার সকালে সোদপুরে আইএসআই প্রবেশিকায় ছেলে ব্যর্থ হওয়ায় স্ত্রী-সন্তানকে কুপিয়ে খুনের চেষ্টা করে আত্মঘাতী বাবা৷ দ্বিতীয় ঘটনায় বাগুইআটিতে বাবা-মা ও মেয়ের রহস্য-মৃত্যুতে চাঞ্চল্য৷

সোমবার সকালে স্ত্রী ও ছেলেকে খুনের চেষ্টার পর সোদপুরের নীলগঞ্জ রোডে আত্মঘাতী হলেন অবসরপ্রাপ্ত সরকারি কর্মী। পুলিশ সূত্রে খবর, ইন্ডিয়ান স্ট্যাটিসটিক্যাল ইনস্টিটিউটের গবেষণার লিখিত পরীক্ষায় উত্তীর্ণ হলেও, মৌখিক পরীক্ষায় উত্তীর্ণ হতে পারেননি গৃহকর্তা বিপ্লব বন্দ্যোপাধ্যায়ের একমাত্র সন্তান। কিন্তু, চোখের সামনে যাবতীয় স্বপ্ন ভেঙে চুরমার হতে দেখে চরম আত্মহত্যার পথ বেছে নেন বিপ্লব বন্দ্যোপাধ্যায়৷ হতাসায় ছেলে ও স্ত্রীকেও খুনে চেষ্টা করেন তিনি৷ পরে রক্তাক্ত অবস্থায় সোমবার তিনজনকে উদ্ধার করে স্থানীয়রা৷

অন্যদিকে, একই পরিবারের তিনজনের দেহ উদ্ধার ঘিরে চাঞ্চল্য ছড়াল বাহুইহাটি এলাকায়। সোমবার সকালের দিকে ওই তিনটি দেহ উদ্ধার করে বাগুইহাটি থানার পুলিশ। জানা গিয়েছে, এক সম্পত্তি এবং তাঁদের শিশু কন্যার দেহ উদ্ধার করা হয়েছে। তিনজনকেই খুন করে হত্যা করা হয়েছে বলে প্রাথমিক তদন্তে অনুমান পুলিশের। তিনটি দেহেই একাধিক আঘাতের চিহ্ন থাকায় খুনের বিষয়ে নিশ্চিত পুলিশ। সকলের দেহেই ধারালো অস্ত্রের আঘাত রয়েছে বলে পুলিশ সূত্রে জানা গিয়েছে। উক্ত ঘটনায় ৩০২ ধারায় খুনের মামলা রুজু করা হয়েছে। সমগ্র ঘটনার তদন্তে নেমেছে পুলিশ।