যখনই আপনি রোগা হওয়ার জন্য ডায়েট চার্ট বানাবেন, তখন প্রথমেই মাথায় রাখতে হয় যে ডায়েট থেকে কিভাবে ক্যালোরি বাদ দেওয়া যায়। তার জন্য বিশেষ কিছু খাবার সবাই বাদ দিয়ে থাকেন। তবে, অনেকেই সঠিকভাবে জানেন না ক্যালোরি বাদ দিতে গিয়ে হয়ত প্রয়োজনীয় প্রোটিন কিংবা ভিটামিনও বাদ পড়ে যাচ্ছে আপনার খাদ্য-তালিকা থেকে। তাছাড়া প্রত্যেক খাবারেরই কিছু না কিছু গুণাগুণ রয়েছে আপনার শরীরের জন্য। তাই, সঠিক উপাদান না জেনে কোনও খাবারই একেবারে বর্জন করা উচিৎ নয়।

ডিমের কুসুম: রোগা হতে গেলে বেশির ভাগ মানুষই ডিমের কুসুম বাদ দেন খাদ্য তালিকা থেকে। কারণ এতে থাকে প্রচুর পরিমাণ ক্যালোরি। শুধুমাত্র সাদা অংশটি খেতে বলেন বিশেষজ্ঞরা। তবে অনেকেই জানেন না যে ডিমের কুসুমে রোগা হওয়ার অনেক উপাদান থাকে। এতে থাকে ভিটামিন-এ, ভিটামিন-বি, কে টু, কোলাইন ইত্যাদি। এগুলি থাইরয়েড কন্ট্রোলে রাখে। এগুলি আপনার শরীর থেকে অবাঞ্ছিত ফ্যাট কমাতে সাহায্য করে।

ঘি: রোগা হতে গেলে ঘি ছোঁয়াই যাবে না। এমনটাই ধারনা রয়েছে। তাই স্বাস্থ্য সচেতন মানুষ ঘি থেকে দূরে থাকার চেষ্টা করেন। আসলে ঘি-তে থাকে স্বাস্থ্যকর ফ্যাট ও স্বাস্থ্যকর ক্যালোরি। যা আপনার ওজন কমতে সাহায্য করবে। ঘি কার্যত শরীরের উপকারে লাগে। শুধু ফ্যাট কমানোই নয়, হজমেও সাহায্য করে এই ঘি।

কলা: কলায় ক্যালোরি রয়েছে, এটা ধরে নিয়েই রোগা হতে কলা খাওয়া বন্ধ করে দেন অনেকে। কিন্তু রোগা হতে বিশেষ কাজে আসে কলা। এই ফল শুধুই স্বাস্থ্যকর ও পুষ্টিগুণ সম্পন্ন নয়, এতে রয়েছে প্রচুর পরিমাণ ফাইবার। ফলে ফ্যাট কমতে সাহায্য করে।