নয়াদিল্লি: নরেন্দ্র মোদীকে হুমকি ও ভারতকে জম্মু ও কাশ্মীর থেকে সেনাবাহিনী প্রত্যাহার করতে বলা। হোয়াটসঅ্যাপে পাঠানো এমনই একটি মেসেজ ঘিরে বুধবার তোলপাড় পড়ে গেল। যে মেসেজ পাকিস্তানের তরফেই পাঠানো হয়েছে বলে দাবি করা হচ্ছে। গোটা ঘটনার তদন্ত শুরু করেছে পুলিশ।

কোল্লাম কালেক্টরেটে মঙ্গলবার মেসেজটি পাঠানো হয়। যে মেসেজে ভারতকে জম্মু ও কাশ্মীর থেকে সেনা প্রত্যাহারের কথা বলা হয়েছে। পাশাপাশি প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীকেও হুঁশিয়ারি দেওয়া হয়েছে ওই মেসেজে। সেই সঙ্গে সেনার সদর দফতর, বিজেপি ও রাষ্ট্রীয় সেবক সংঘ (আরএসএস)-এর সদস্যদের উদ্দেশেও হুমকি দিয়ে বলা হয়েছে, বার্তাপ্রেরকরা সকলের উপরই নজরদারি চালাচ্ছে।

কোল্লাম জেলা প্রশাসনের এক কর্তা সংবাদসংস্থা পিটিআইকে জানিয়েছেন, কালেক্টরেটের মোবাইল ফোন নম্বর, যেটা কেরল বিপর্যয় মোকাবিলা দফতর জরুরি পরিস্থিতিতে তাদের কন্ট্রোল রুমের নম্বর হিসাবে ব্যবহার করে থাকে, তাতেই মঙ্গলবার রাতে পাকিস্তানের একটি ফোন নম্বর থেকে হোয়াটসঅ্যাপে হুমকিবার্তা পাঠানো হয়।

তদন্তকারী এক আধিকারিক বলেছেন, ‘কন্ট্রোল রুমের নম্বরে হোয়াটসঅ্যাপে একটি মেসেজ আসে যাতে বলা হয়, হিন্দুস্তান মুর্দাবাদ। সঙ্গে অন্যান্য অনেক কথাও লেখা হয়েছে। আমরা একটি এফআইআর দায়ের করে তদন্ত করছি।’ জেলা প্রশাসনের তরফ থেকে স্থানীয় পুলিশের হাতে তদন্তে সাহায্যের জন্য সমস্ত তথ্য তুলে দেওয়া হয়েছে।