কলকাতা : কুখ্যাত বাংলাদেশী ও আন্তর্জাতিক দুষ্কৃতী সুব্রত বাইনের নাম করে ভারতীয় মোবাইল নম্বর থেকে বাংলাদেশের অধ্যাপককে ফোন করে বিপুল টাকার দাবি৷ অধ্যাপকের নাম আনু মহম্মদ৷ তিনি জাহাঙ্গীর নগর বিশ্ববিদ্যালয়ের অর্থনীতির অধ্যাপক৷ এর পাশাপাশি, তিনি সুন্দরবন বাঁচাও আন্দোলনের গুরুত্বপূর্ণ নেতা৷

সূত্রের খবর, মঙ্গলবার সকালে ফোন করে তাঁকে হুমকি দেওয়া হয়৷ এই সুব্রত বাইনের নামে ৪০ থেকে ৫০টি খুনের মামলা দায়ের রয়েছে৷ ২০০৩ সালে সুব্রত বাইন বাংলাদেশ থেকে পালিয়ে কলকাতার বৌবাজারে ঘাঁটি গাড়ে৷ বাংলাদেশ সরকার সেই তথ্য তুলে দেয় কলকাতা পুলিশের হাতে৷

সেই তথ্য নিয়ে সুব্রত বাইনকে গ্রেফতার করে কলকাতা পুলিশ৷ জামিন নিয়ে সুব্রত পালায় নেপালে৷ তৎকালীন শীর্ষ পুলিশ অফিসার রাজীব কুমারের নেতৃত্বে পুলিশের একটি দল ভারত সীমান্তে আন্তর্জাতিক অভিযান চালায়৷ সেই অভিযানে নেপালের কাঁকরভিটা থেকে গ্রেফতার হয় সুব্রত৷ এরপর তাঁকে নেপালের জেলে রাখা হয়৷

সেই জেল ভেঙেও পালায় সুব্রত৷ পরে আবার তাঁকে কলকাতায় গ্রেফতার করা হয়৷ পুরো অভিযানের নেতৃত্বে ছিলেন রাজীব কুমার৷উল্লেখ্য, মঙ্গলবার সকালে +৯১৮০১৭৮২২৭২৫ নম্বর থেকে ফোন আসে বলে জানা গিয়েছে৷