ভোপাল: শিকেয় সামাজিক দূরত্ব বজায়ের বিধি। লকডাউনের মধ্যেই ধর্মীয় গুরুর শেষকৃত্যে হাজার-হাজার ভক্তের জমায়েত। মধ্যপ্রদেশের কাটনির ঘটনায় চোখ কপালে চিকিৎসকদের। মারণ করোনার সংক্রমণ ব্যাপক হারে ছড়ানোর আশঙ্কা করছেন চিকিৎসকরা।

যদিও লকডাউনের সব বিধি মেনেই শেষকৃত্যের আযোজন করা হয়েছিল বলে জানায় সংশ্লিষ্ট জেলা প্রশাসন।

গোটা দেশেই করোনাভাইরাসে আক্রান্তের সংখ্যা ইতিমধ্যেই ১ লক্ষ ছাড়িয়ে গিয়েছে। লাফিয়ে বাড়ছে মৃত্যুর হার। স্বাস্থ্যমন্ত্রকের দেওয়া রিপোর্ট জানাচ্ছে, শেষ ২৪ ঘন্টায় নতুন করে আক্রান্ত হয়েছেন ৪৯৭০ জন। মৃত্যু হয়েছে ১৩৪ জনের। গত ২৪ ঘন্টার হিসেব ধরলে দেশে এখনও পর্যন্ত করোনা আক্রান্ত বেড়ে ১ লক্ষ ১ হাজার ১৩৯। মৃত্যু হয়েছে ৩১৬৩ জনের।

মধ্যপ্রদেশেও ব্যাপক হারে ছড়াচ্ছে সংক্রমণ। স্বাস্থ্যমন্ত্রকের দেওয়া তথ্য অনুযায়ী মঙ্গলবার সকাল পর্যন্ত রাজ্যে নোভেল করোনাভাইরাসে আক্রান্তের সংখ্যা বেড়ে ৫২৩৬।

করোনায় মধ্যপ্রদেশে মৃত্যু বেড়ে ২৫২। এই পরিস্থিতিতেও লকডাউন বিধিকে বুড়ো আঙুল দেখিয়ে এক ধর্মীয় গুরুর শেষকৃত্যে যোগ দিলেন হাজার-হাজার ভক্ত। রাজ্যের শাসক-বিরোধী সব দলের নেতা থেকে শুরু মন্ত্রীরাও যোগ দিয়েছিলেন শেষকৃত্যে।

রবিবার মারা যান মধ্যপ্রদেশের ধর্মীয় দেব প্রভাকর শাস্ত্রী বা ‘দাদাজি’। দেশজুড়ে তাঁর বহু শিষ্য ও অনুগামী রয়েছেন। ফুসফুস ও কিডনির অসুখে ভুগছিলেন তিনি।

দিল্লির হাসপাতাল থেকে অবস্থার অবনতি হলে তাঁকে মধ্যপ্রদেশে ফিরিয়ে আনা হয়। মধ্যপ্রদেশেই তাঁর মৃত্যু হয়। শেষকৃত্যে যোগ দেন তাঁর হাজার-হাজার অনুরাগী।

সপ্তম পর্বের দশভূজা লুভা নাহিদ চৌধুরী।