কলকাতা: এবার মুসলিম সমাজের একাংশকে বিঁধলেন রাজ্য ইমাম অ্যাসোসিয়েশনের সভাপতি মোহাম্মদ ইয়াহিয়া। তাঁর মতে, ‘মুসলিম সম্প্রদায়ের কেউ যদি বিজেপিতে যোগ দেন তবে তাঁকে মুসলিম হিসেবে বিবেচনা করা হবে না।’ ইতিমধ্যেই বেঙ্গল ইমাম অ্যাসোসিয়েশনের তরফে চিঠি দিয়ে এই মতামত রেখেছেন সংগঠনের সভাপতি।

বেঙ্গল ইমাম অ্যাসোসিয়েশনের সভাপতি মোহাম্মদ ইয়াহিয়ার মতে, ‘এক শ্রেণির মুসলমান রাজনৈতিক কেরিয়ার তৈরির জন্যই বিজেপিতে যোগ দেওয়ার পরিকল্পনা করছেন। বিজেপি এবং আরএসএস মুসলিম বিরোধী।’

এরই পাশাপাশি তিনি আরও বলেন, ‘বিজেপিতে যোগ দেওয়া মুসলমানদের বিরুদ্ধেও পরে আওয়াজ উঠবে। কোনও মুসলিম বিজেপিতে যোগ দিলে তাঁকে মুসলিম হিসেবে বিবেচনা করা হবে না।’

এরই পাশাপাশি অযোধ্যায় রাম মন্দিরে ভূমি পুজো নিয়েও সরব হয়েছে বেঙ্গল ইমাম অ্যাসোসিয়েশন। করোনা আবহে রাম মন্দিরের ভূমি পুজোয় গিয়ে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী নিজেই স্বাস্থ্যবিধি ভেঙেছেন বলে অভিযোগ তুলেছেন ইমামদের সংগঠনের সভাপতি।

তিনি বলেন, ‘অযোধ্যায় একজন পুরোহিত ও তাঁর সহযোগী করোনা আক্রান্ত হওয়ার পরেও প্রধানমন্ত্রী কেন সেখানে গেলেন?’ এপ্রসঙ্গে বলতে গিয়ে দিল্লির নিজামুদ্দিনের তবলিঘি জামাতের প্রসঙ্গ তুলেছেন মোহাম্মদ ইয়াহিয়া।

তিনি বলেন, ‘নিজামুদ্দিনের জামাতের সময় যখন প্রশাসন এত তৎপরতা নিলেন, তখন এই একই আবহে অযোধ্যায় ভূমি পুজোর কর্মসূচি কিভাবে হল?’ রাম মন্দিরের ভূমি পুজোর দিন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর সেখানে উপস্থিত থাকা নিয়েও প্রশ্ন তুলেছেন তিনি।

প্রশ্ন অনেক: দশম পর্ব

রবীন্দ্রনাথ শুধু বিশ্বকবিই শুধু নন, ছিলেন সমাজ সংস্কারকও