উপরের ছবিটি দেখে দেশের যে কোনও সিনেপ্রেমী চিনতে পারবেন৷ অমিতাভ ধর্মেন্দ্রর এ ছবি যে ‘শোলে’ সিনেমার, তা নিয়ে কোনও সংশয় হয়ত থাকবে না কারোরই৷ কিন্তু মজার বিষয় হল, সিনেমায় কিন্তু এ দৃশ্যটি ছিল না৷ এডিট টেবিলে বাদ পড়েছিল জয়-বীরুর এই খাওয়ার দৃশ্য৷

একটি ধাবায় খাচ্ছে জয় ও বীরু৷ ইচ্ছে করেই তারা জায়গাটিকে এমন নোংরা করে, যাতে ধাবা মালিক খেপে যান৷ তাতেই বাধে ঝামেলা৷ যা গড়ায় হাতাহাতিতে৷ কাহিনির খাতিরেই শুট হয়েছিল এ দৃশ্য৷ কিন্তু এডিট টেবিলে বসে ঝামেলায় পড়ে যান সম্পাদক মাধব রাও শিন্ডে৷ এডিটে বসেই তিনি বুঝতে পারেন, এ ছবি ব্লকবাস্টার হতে চলেছে৷ কিন্তু ছবির দৈর্ঘ্য এত বড় হয়ে যাচ্ছে যে, তিনি নিজেই সংশয়ে পড়ে যান, কোন দৃশ্য বাদ দেবেন তা নিয়ে৷ শেষমেশ পরিচালক রমেশ সিপ্পির সঙ্গে আলোচনা করে এ দৃশ্যটি বাদ দেন তিনি৷

ছবির ক্ল্যাইম্যক্সও অন্যভাবে শুট হয়েছিল৷ গব্বরকে মারা যে দৃশ্যটি দেখা যায়, তার অকটি অন্যরকম ভার্সনও মেলে অনলাইনে৷ তবে আরও একটি দৃশ্য যে বাদ গিয়েছিল শোলে থেকে তা অই প্রথম জানা গেল৷ আজও ‘শোলে’ মানেই ঠায় টেলিভিশনের সামনে বসে থাকেন দর্শকরা৷ আর তার নেপথ্যেও যে কম কাহিনি জমে নেই, এ দৃশ্য তার প্রমাণ দিচ্ছে৷

পপ্রশ্ন অনেক: চতুর্থ পর্ব

বর্ণ বৈষম্য নিয়ে যে প্রশ্ন, তার সমাধান কী শুধুই মাঝে মাঝে কিছু প্রতিবাদ