হরিয়ানাঃ  নিয়ম করে সংঘর্ষ বিরতি চুক্তি লঙ্ঘন করছে পাকিস্তান। একেবারে ভারতীয় সেনা ছাউনি লক্ষ্য করে চলছে হামলা। শুধু তাই নয়, ভারতীয় জওয়ানদের মুণ্ডচ্ছেদ করে চরম জঘন্যতম কাজ করেছে পাকিস্তান। আর সেই ঘটনার প্রতিবাদেই অভিনব কাজ করলেন এক প্রাক্তন জওয়ানের স্ত্রী। খোদ প্রধানমন্ত্রী মোদী ৫৬ ইঞ্চির অন্তর্বাস পাঠিয়ে প্রতিবাদ জানালেন তিনি৷ ইতিমধ্যে সেই ভিডিও ভাইরাল হয়ে পড়েছে সোশ্যাল মিডিয়াতে। শুধু তাই নয়, সেই ভিডিও শেয়ার করে চলছে প্রতিবাদ।

চাঞ্চল্যকর এই ঘটনাটি ঘটেছে হরিয়ানার ফতেবাদে। ভারতীয় সেনার প্রাক্তন সেনা ধরমবীর সিংয়ের স্ত্রী সুমন সিং। সীমান্তে যেভাবে বারবার ভারতীয় সেনা-জওয়ানরা পাক হামলার মুখে পড়ছেন, আর তা জেনে শুনেও চুপ করেছেন মোদী। আর সেই ঘটনার প্রতিবাদ জানাতেই মোদী ৫৬ ইঞ্চির অন্তর্বাস পাঠালেন তিনি। মুলত সাহসিকতার প্রশংসা হিসাবে ৫৬ ইঞ্চির ছাতি ব্যবহার করা হয়। মোদী নিজে মুখে তো বটেই, সার্জিকাল স্ট্রাইক থেকে নোট বাতিল সহ একাধিক ইস্যুতে যেভাবে মোদী সাহসীকতা দেখিয়েছেন সেই প্রসংসা করতে অনেকেই মোদীকে ৫৬ ইঞ্চির ছাতির কথা উল্লেখ করেছেন। আর সেই বিষয়টিকে কটাক্ষ করে এই মহিলারা এই কর্মসূচী।

 

সুমন সিংয়ের দাবি, প্রধানমন্ত্রী আশ্বস্ত করেছিলেন, সেনাদের সঙ্গে আগে যে ব্যবহার হয়েছে তা যাতে দ্বিতীয়বার না হয়, তা নিশ্চিত করবেন তিনি৷ কিন্তু বর্তমানে যা হচ্ছে তা আগের থেকেও খারাপ৷ শুধু অন্তবাস পাঠানো নয়, মোদীকে চিঠিও পাঠিয়েছেন তিনি। তাতে পাকসেনার মাথা কেটে নেওয়া থেকে কাশ্মীরের ঘটনার কথাও উল্লেখ করেছেন৷ একই সঙ্গে প্রত্যেক ঘটনার কড়া বদলা নেওয়ার আবেদন জানিয়েছেন চিঠিতে।

লাল-নীল-গেরুয়া...! 'রঙ' ছাড়া সংবাদ খুঁজে পাওয়া কঠিন। কোন খবরটা 'খাচ্ছে'? সেটাই কি শেষ কথা? নাকি আসল সত্যিটার নাম 'সংবাদ'! 'ব্রেকিং' আর প্রাইম টাইমের পিছনে দৌড়তে গিয়ে দেওয়ালে পিঠ ঠেকেছে সত্যিকারের সাংবাদিকতার। অর্থ আর চোখ রাঙানিতে হাত বাঁধা সাংবাদিকদের। কিন্তু, গণতন্ত্রের চতুর্থ স্তম্ভে 'রঙ' লাগানোয় বিশ্বাসী নই আমরা। আর মৃত্যুশয্যা থেকে ফিরিয়ে আনতে পারেন আপনারাই। সোশ্যালের ওয়াল জুড়ে বিনামূল্যে পাওয়া খবরে 'ফেক' তকমা জুড়ে যাচ্ছে না তো? আসলে পৃথিবীতে কোনও কিছুই 'ফ্রি' নয়। তাই, আপনার দেওয়া একটি টাকাও অক্সিজেন জোগাতে পারে। স্বতন্ত্র সাংবাদিকতার স্বার্থে আপনার স্বল্প অনুদানও মূল্যবান। পাশে থাকুন।.

করোনা পরিস্থিতির জন্য থিয়েটার জগতের অবস্থা কঠিন। আগামীর জন্য পরিকল্পনাটাই বা কী? জানাবেন মাসুম রেজা ও তূর্ণা দাশ।