নয়াদিল্লি: বাস্তবেই যেন উঠে এল সিনেমার ক্লাইম্যাক্স দৃশ্য। যেখানে চোরকে ধরার জন্য বিমানে করে চোরের আগেই হাজির পুলিশ। এই রকম টানটান উত্তেজনাপূর্ণ ঘটনার সাক্ষী থাকল আজমের রেল স্টেশন। এক টুকরো বলিউড সিনেমা যেন উঠে এল বাস্তবের মাটিতে। বাস্তবেই যেন দেখা মিলল সিঙ্ঘমের।

২১ বছর বয়সী কুশল সিং ব্যাঙ্গালুরুতে তার মালিকের বাড়ি থেকে দিওয়ালির রাতে সোনার কিছু গয়না চুরি করার পরে ট্রেনে করে নিজের বাড়ি আজমেরে ফিরছিল। ভাবতেও পারেনি ষ্টেশনে নামার আগেই তার জন্য অপেক্ষা করে রয়েছে এক চমক।

তদন্তকারী পুলিশ অফিসার তাকে ধরার জন্য একটি বিমানে করে তার আগেই আজমের পৌঁছে ষ্টেশনে কুশলের জন্য অপেক্ষা করতে থাকেন। ষ্টেশনে নামার সঙ্গে সঙ্গে তাকে গ্রেফতার করা হয়। কুশল নিজেও বুঝতে পারেনি এভাবে পুলিশ তাকে ধরতে পারবে।

সংবাদমাধ্যমের তরফ থেকে জানা গিয়েছে, কুশল তার কাজের প্রথমদিনেই ব্যবসায়ী মেহাক ভি পিরাগালের বাড়ি থেকে চুরি করেন। দিওয়ালিতেই প্রথম কাজে যোগ দিয়েছিল। জানা গিয়েছে, পিরাগাল পরিবার তাকে বাড়ি পাহারা দেওয়ার দায়িত্ব দিয়ে পুজো উপলক্ষে বেরিয়েছিলেন। রাত ৯ টা নাগাদ ফিরে দেখেন সারা ঘর তছনছ হয়ে রয়েছে এবং বেশ কিছু গয়না পাওয়া যাচ্ছে না আর সেখানে কুশলও উপস্থিত ছিল না।এরপরেই তারা পুলিশে জানান। খুব দ্রুত তদন্ত করে উঠে আসে এই সবকিছুর পিছনে রয়েছে কুশল স্বয়ং। তারপরেই তদন্তকারী পুলিশ অফিসার বিমানে করে আজমেরের উদ্দেশ্যে উড়ে যান এবং ষ্টেশনে গিয়ে কুশলের জন্য অপেক্ষা করতে থাকেন। গয়নাগুলো বিক্রি করার আগেই সে ধরা পরল পুলিশের হাতে।পুলিশ সুত্রে জানা গিয়েছে, কুশল প্রথমবার ব্যাঙ্গালুরু গিয়েছিল। তার কোনও ক্রিমিনাল রেকর্ড নেই। তাড়াতাড়ি অনেক টাকা রোজগার করে সুখে থাকার জন্য সে ভুল পথ বেছে নিয়েছিল।