নয়াদিল্লি: লোকসভা ভোটের বিউগল বেজে গিয়েছে৷ আর কিছুদিনের মধ্যেই সব রাজনৈতিক দল তাদের প্রার্থী তালিকা প্রকাশ করবে৷ অনেক নতুন মুখ দেখা যাবে প্রচারের ময়দানে৷ তেমনই দীর্ঘদিন দাপটের সঙ্গে রাজনীতি করা অনেক পুরানো নেতা ভোটে লড়বেন না৷ এখনও অবধি চার জন দুঁদে রাজনৈতিক নেতা লোকসভা ভোটে দাঁড়াবেন না৷ তারা হলেন সুষমা স্বরাজ, উমা ভারতী, শরদ পাওয়ার ও রাম বিলাস পাসওয়ান৷

পঞ্চম ব্যক্তিটি হলেন প্রাক্তন প্রধানমন্ত্রী মনমোহন সিং৷ কংগ্রেস তাঁকে পঞ্জাব থেকে প্রার্থী করতে চায়৷ যদিও সূত্রের খবর, তিনি ভোটে দাঁড়ানো নিয়ে অনীহা প্রকাশ করেছেন৷

শরদ পাওয়ার: মহারাষ্ট্রের প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী ও এনসিপি নেতা শরদ পাওয়ার সোমবার পুনের একটি কর্মিসভায় ভোটে না দাঁড়ানোর কথা ঘোষণা করেন৷ ১৯৯১ সাল থেকে ২০০৯ সাল অবধি লোকসভার সাংসদ ছিলেন৷ ইউপিএ আমলে শরদ পাওয়ারকে খাদ্য ও কৃষিমন্ত্রকের দায়িত্ব দেওয়া হয়৷ বর্তমানে তিনি রাজ্যসভার সাংসদ৷

রামবিলাস পাসওয়ান: এনডিএ শিবিরের জোটসঙ্গি লোক জনশক্তি পার্টির নেতা রামবিলাস পাসওয়ান এবার লোকসভা ভোটে না দাঁড়ানোর সিদ্ধান্ত নিয়েছে৷ জানান, ৫০ বছর পর তিনি ভোটে দাঁড়াবেন না৷ রামবিলাস পাসওয়ান বিহারের হাজিপুর কেন্দ্রের সাংসদ৷ জানা গিয়েছে, রামবিলাস পাসওয়ান এখন রাজ্যসভার সাংসদ হতে চান৷

সুষমা স্বরাজ: ভোট ঘোষণা হওয়ার অনেক আগেই নির্বাচনে না লড়াই করার কথা জানিয়ে দেন বিজেপির অন্যতম শীর্ষ নেত্রী সুষমা স্বরাজ৷ মধ্যপ্রদেশের বিদিশা লোকসভা কেন্দ্রের সাংসদ ৬৬ বছর বয়সী সুষমা নরেন্দ্র মোদী সরকারে বিদেশমন্ত্রকের দায়িত্ব পান৷ কিন্তু ২০১৬ সালের মঝামাঝি সময়ে তিনি কিডনির সমস্যায় ভুগতে শুরু করেন৷ ওই বছর ডিসেম্বর মাসে তাঁর কিডনি প্রতিস্থাপন হয়৷ এত বড় অস্ত্রোপচারের পর তাঁর শরীর বিদেশমন্ত্রকের মতো গুরুত্বপূর্ণ পদ সামলানোর অনুমোদন দিচ্ছিল না৷ সেই কারণে তাঁর সরে দাঁড়ানোর সিদ্ধান্ত৷ তবে রাজ্যসভায় তিনি যেতে আগ্রহী বলে বিজেপি সূত্রে খবর৷

উমা ভারতী: আগামী বছরের লোকসভা নির্বাচনে লড়বেন না বিজেপির আরও এক হেভিওয়েট রাজনীতিক নেত্রী উমা ভারতী৷ কেন্দ্রীয় জলসম্পদ মন্ত্রী উমা ভারতী জানান, নির্বাচনী লড়াইতে না থাকলেও রামমন্দির ইস্যুতে লড়াই চালিয়ে যাবেন।

মনমোহন সিং: আনুষ্ঠানিক ঘোষণা করেননি৷ তবে সূত্রের খবর লোকসভা ভোটে তিনি দাঁড়াতে চান না৷ যদি কংগ্রেস তাঁকে পঞ্জাব থেকে ভোটে দাঁড়ানোর প্রস্তাব দিয়েছে৷ কিন্তু প্রাক্তন প্রধানমন্ত্রীকে নিজের অবস্থান থেকে এখনও অবধি সরানো যায়নি৷