অরুণাভ রাহারায়: বৃহস্পতিবার ইংল্যান্ড-দক্ষিণ আফ্রিকা ম্যাচ দিয়ে শুরু হয়ে গেল বিশ্বকাপের আসর। বিশ্বকাপের উন্মাদনা থেকে বাদ যায়নি বাংলা। অনেকটা পথ পেরিয়ে এসে বিশ্বকাপের রং লেগেছে কালকাতার আনাচে কানাচেও। গায়ক থেকে লেখক, রাজনীতিবীদ থেকে শুরু করে অভিনেতা– ক্রিকেট বিশ্বকাপের আস্বাদ নিতে সবার চোখ এখন টিভির পার্দায়। নিজের দেশ সবার সেরা– এমনই মত তাঁদের।

সাহিত্যিক শীর্ষেন্দু মুখোপাধ্যায়ের মুখেও এখন বিশ্বকাপের কথা। তবে কি তিনি লেখালিখি থেকে বিশ্রাম নিয়ে দিন কয়েকের জন্য মন মাতাবেন বাইশ গজে? ক্রিকেট তাঁর বরাবর প্রিয়। ক্রিকেট নিয়ে শীর্ষেন্দুর লেখালিখিও বিস্তর। বিশ্বকাপের আসরে তিনিও কাবু ক্রিকেট জ্বরে। তিনি বলেন, “বারবার ক্রিকেট খেলা দেখলেও বিশ্বকাপ ক্রিকেটের দিকে আমার বিশেষ নজর থাকে। বিশেষ করে যেদিন ভারতের খেলা থাকবে সেদিন যথা সময় টিভির সমনে বসে পড়ব। বিরাট কোহলির নেতৃত্বে ভারত কেমন খেলবে সেটা দেখার জন্য উন্মুখ হয়ে আছি। এবারের বিশ্বকাপে টিম ইন্ডিয়ার জেতার যথেষ্ট সম্ভাবনা রয়েছে। টিম ইন্ডিয়াকে আমার শুভেচ্ছা।”

তবে শীর্ষেন্দু মুখোপাধ্যায়ের মতে এবারের ভারতীয় দলে একটু খুঁত রয়েছে। তিনি মনে করেন ধারাবাহিকভাবে ভালো খেলার পরেও এবারের বিশ্বকাপ দলে ঋষভ পন্তের জায়গা পাওয়া অবশ্যই উচিৎ ছিল। শীর্ষেন্দু বাবুর কথায়, “ঋষভ পন্তকে কেন দলে জায়গা দেওয়া হল না সেটা নিয়ে ধন্দে আছি। ঋষভ খেললে টিমটা আরও মজবুত হত বলেই আমার মনে হয়। এই মুহূর্তে ঋষভের ফর্ম দুর্দান্ত। তা সত্বেও বিশ্বকাপের দল থেকে তাঁকে কেন বাদ দেওয়া হল সেটা বুঝা গেল না। তবু আশা করব ভারত ভালো খেলবে।”

আগামী ৫ জুন টাইটানিকের শহর সাউদাম্পটনে দক্ষিণ আফ্রিকার বিরুদ্ধে বিশ্বকাপ অভিযান শুরু করতে চলেছে বিরাটবাহিনী। এই নিয়ে তৃতীয়বার বিশ্বকাপ খেললেও অধিনায়ক হিসেবে বিরাটের বিশ্বকাপ খেলার অভিজ্ঞতা প্রথম। সাম্প্রতিক পারফরম্যান্সের ভিত্তিতে ক্রিকেট বিশেষজ্ঞরা টুর্নামেন্টে ফেভারিট হিসেবে দেখছেন ভারতকে। বিরাটের নেতৃত্বে দল ভালো খেলবে এমনটাই প্রত্যাশা ভারতবাসীর।