নয়াদিল্লি: ক্রমশ সাইক্লোনের পরিমাণ বাড়তে চলেছে আরব সাগরে। এমনটাই সতর্কবার্তা দিলেন এক গবেষক। প্রাক্তন ইউনিয়ন আর্থ সায়েন্সের সেক্রেটারি শৈলেশ নায়ক বলেন, ২০১৪ থেকে সব পরিসংখ্যান খতিয়ে দেখা গিয়েছে, ক্রমশ আরব সাগরে ঘূর্ণিঝড়ের সম্ভাবনা বাড়ছে। গ্লোবাল ওয়ার্মিং-এর জেরেই এমনটা হচ্ছে বলেও মন্তব্য করেছেন তিনি।

কোস্টাল জোন ম্যানেজমেন্টের একটি দু’দিনের ওয়ার্কশপে তিনি জানান, অদূর ভবিষ্যতে বড়সড় সাইক্লোনের মুখোমুখি হতে পারে আরব সাগর। গত দু’বছর ধরে সমুদ্রে সাইক্লোনের প্রবণতা বাড়ছে বলেও জানান তিনি। ২০১৪ তে একবার সাইক্লোন হয়, ২০১৫ তে দু’বার হয় ঘূর্ণিঝড়। এছাড়া পশ্চিম উপকূলে ‘ওকি’ আছড়ে পড়ার সম্ভাবনা ছিল। এর আগে এত কম সময়ের মধ্যে এত সাইক্লোনের প্রবণতা দেখা যায়নি বলে উল্লেখ করেন তিনি। তাঁর কথায়, বর্তমানে যে প্রত্যেক বছর সাইক্লোনের ঘটনা ঘটছেই।

এছাড়া ২০১৪ তে ভারতের পশ্চিম উপকূলে আছড়ে পড়ে ‘নিলোফার’। যেখানে ১০০ মাইলের থেকেও বেশি গতিতে সমুদ্রের উপর দিয়ে হাওয়া বয়ে যায়। ৩০,০০০ মানুষকে এলাকা থেকে সরিয়ে নিয়ে যেতে হয়। ২০১৫ তে আরব সাগরে আরও দিবার সাইক্লোন হয়। সাইক্লোন ‘চপল’-এর গতি ছিল ১৫০ মাইল/ঘণ্টা আর সাইক্লোন মেঘের জন্য ২৭ জনের মৃত্যু হয়।

এই ধরনের প্রবণতা মানবজাতির জন্য বিপজ্জনক বলেও উল্লেখ করেন তিনি।