স্টাফ রিপোর্টার, সিউড়ি: পুজোর আগে চাঁদার জুলুম প্রায় প্রতি বছরই খবরের শিরোনামে আসে৷ এই বছরও তার ব্যতিক্রম হল না৷ শান্তিনিকেতনের দিগন্ত পল্লী এলাকায় এক বৃদ্ধার গলায় ছুরি ঠেকিয়ে জোর করে চাঁদা আদায়ের অভিযোগ উঠল৷

জানা গিয়েছে, শনিবার সন্ধ্যায় দুর্গা পুজোর চাঁদার নাম করে একজন যুবক ৭৯ বছরের বৃদ্ধা হৈমন্তী দত্তগুপ্তের বাড়িতে ঢোকে৷ এরপরেই বাড়িতে কেউ না থাকার সুযোগে বৃদ্ধার গলায় ছুরি ধরে তাঁর সর্বস্ব লুট করে ওই যুবক৷ আলমারি থেকে নগদ আট হাজার টাকা, দুটি সোনার বালা সহ তাঁর মোবাইলটি লুট করে পালায় ওই যুবক৷

আরও পড়ুন: রাজ্যের সমস্ত কর্মীদের জন্যে গুরুত্বপূর্ণ নির্দেশিকা

এমনকি বৃদ্ধার মুখ চেপে ধরে বাথরুমে বন্ধ করে রেখে চম্পট দেয় সে৷ ঘটনায় হৈমন্তী দেবী চিৎকার শুরু করেন৷ তাঁর চিৎকার শুনে প্রতিবেশীরা তাঁর বাড়িতে আসেন৷ কিন্তু তাঁকে কোথাও প্রথমে খুঁজে পাওয়া যায়নি৷ পরে তাঁর চিৎকার অনুসরণ করে বাথরুমে যান প্রতিবেশীরা৷ তাঁরাই খবর দেয় শান্তিনিকেতন থানায়৷

বৃদ্ধা হৈমন্তী দত্তগুপ্ত বলেন, ‘প্রথমে ওই যুবক বলে দুর্গা পুজোর চাঁদার জন্য এসেছি৷ আমি বলি একজন দুর্গা পুজোর চাঁদা নিতে এসেছো৷ আমি বয়স্ক মানুষ বাড়িতে একা থাকি৷ সকালে এসো দেখবো৷ এরপরে ওই যুবক বাড়িতে কেউ না থাকার সুযোগ নিয়ে একটি ছুরি বের করে আমায় ভয় দেখাতে থাকে৷ আমার আলমারি থেকে নগদ আট হাজার টাকা এবং দুটি সোনার বালা হাতিয়ে নেয়৷ তারপর আমাকে বাথরুমে বন্ধ করে রেখে চম্পট দেয়।’

আরও পড়ুন: স্টেশনে এমন নজিরবিহীন সুবিধা আগে কখনও দেয়নি রেল

সেদিন রাতেই শান্তিনিকেতন থানার পুলিশ তল্লাশি চালিয়ে ওই যুবককে গ্রেফতার করে৷ পুলিশ সূত্রে জানা গিয়েছে, ওই যুবকের নাম কর্ণ মন্ডল৷ বাড়ি বোলপুরের ভুবনডাঙ্গা এলাকায়৷ পুরো বিষয়টি খতিয়ে দেখছে শান্তিনিকেতন থানার পুলিশ৷