তিমিরকান্তি পতি, বাঁকুড়া: যুদ্ধকালীন তৎপরতায় জলের ট্যাঙ্ক ভেঙে পড়ার অল্প সময়ের মধ্যে এলাকায় জলসরবরাহ চালু করল প্রশাসন। স্বস্তির নিশ্বাস বাঁকুড়ার জঙ্গলমহলে।

প্রসঙ্গত, বুধবার দুপুরে হঠাৎ করে সারেঙ্গার ফতেডাঙ্গা গ্রামে হুড়মুড়িয়ে ভেঙে পড়ে জনস্বাস্থ্য কারিগরী দফতরের তৈরি জলের ট্যাঙ্ক। মাত্র দু’বছর আগে তৈরি ওই জলের ট্যাঙ্ক কিভাবে ভেঙে পড়তে পারে তা নিয়ে তৈরি হয় বিতর্ক। শাসক-বিরোধী তর্জার মাঝেই ওই এলাকার মানুষ পানীয় জলের সংকটের আশঙ্কা করছিলেন।

এলাকার মানুষের কথা ভেবে তড়িঘড়ি বৃহস্পতিবার দুপুর থেকেই জলসরবরাহ চালু করে প্রশাসন। আপাতত পরিশ্রুত হওয়ার পর ওই জল রিজার্ভারে না নিয়ে গিয়ে সরাসরি পাইপ লাইনের মাধ্যমে সরবরাহ করা হবে। এই বিষয়ে সংশ্লিষ্ট দফতরের কর্মরত কর্মীরা সংবাদমাধ্যমের ক্যামেরার সামনে মুখ খুলতে রাজি হননি। অফ্ ক্যামেরা তারা জানিয়েছেন, আপাতত সিদ্ধান্ত হয়েছে, যত দিন পর্যন্ত ওই রিজার্ভার বা জলের ট্যাঙ্কটি পূনঃনির্মাণ হচ্ছে ততদিন এইভাবেই এলাকায় পানীয় জল সরবরাহ করা হবে।

এদিকে ফের জল সরবরাহ চালু হওয়ায় খুশি এলাকার মানুষ। গ্রামবাসী হেমাল মুর্ম্মু, সন্দীপ দে’রা বলেন, ওই ঘটনার পর আমরা ভেবেছিলাম হয়ত দীর্ঘদিন জলসমস্যার মধ্য দিয়ে কাটাতে হবে। তবে তড়িঘড়ি যেভাবে গ্রামে জলসরবরাহ ফের শুরু হল, তাতে তাঁরা প্রত্যেকেই খুশি বলে জানিয়েছেন।