তিমিরকান্তি পতি, বাঁকুড়া: প্রশাসনিক নজরদারির অভাবে বিপদের আশঙ্কাকে হেলায় উড়িয়ে রহস্য- রোমাঞ্চের টানে জলাধারের বিশালাকার গেটের উপরে উঠে যাচ্ছেন পর্যটকদের একাংশ। অতি উৎসাহী কেউ কেউ আবার সেখানে দাঁড়িয়ে মোবাইল ক্যামেরায় তুলে রাখছেন নিজেদের সেই মুহূর্তের নিজস্বী। চলতি পর্যটন মরশুমের প্রায় প্রতিদিন এমন চিত্র ধরা পড়ছে বাঁকুড়ার সোনামুখীর রণডিহা জলাধারে।

শুশুনিয়া, মুকুটমনিপুরের পাশাপাশি জেলার পর্যটন মানচিত্রে বিশেষ জায়গা করে নিয়েছে সোনামুখীর রণডিহা জলাধার। প্রাকৃতিক সৌন্দর্যের টানে ফি বছর অসংখ্য পরিযায়ী পর্যটক এখানে আসেন। কিন্তু প্রশাসনিক নজরদারির অভাবে জলাধারের উঁচু গেটের উপর যে পর্যটকরা উঠে পড়ছেন তা নিয়েই তৈরী হয়েছে সমস্যা।

এর ফলে একটু অসাবধানতার জেরে মৃত্যু পর্যন্ত হতে পারে বলে অনেকে মনে করছেন। স্থানীয় বাসিন্দা সাগর রায় বলেন, যেভাবে পর্যটকরা বিপদের আশঙ্কাকে তুড়ি মেরে উড়িয়ে দিয়ে গেটের উপরে উঠে পড়ছেন তা সত্যিই চিন্তার বিষয়। এর আগে এখানে দুর্ঘটনা ঘটেছে জানিয়ে এই প্রবণতা রুখতে প্রশাসনিক হস্তক্ষেপের দাবি করেছেন তিনি। এখানে বেড়াতে আসা অনিল বিশ্বাস বলেন, যেভাবে শিশু থেকে বৃদ্ধ প্রায় সকলেই গেটের উপরে উঠে পড়ছেন তা বন্ধ হওয়া দরকার। এই বিষয়ে প্রশাসন যথোপযুক্ত ব্যবস্থা গ্রহণ করবে বলে তিনি আশাবাদী।

এবিষয়ে আমরা কথা বলেছিলাম সোনামুখী পঞ্চায়েত সমিতির সভাপতি প্রণব রায়ের সঙ্গে। তিনি বলেন, এই ধরণের কোনও খবর তাঁদের কাছে নেই। বিষয়টি খোঁজ নিয়ে দেখা হবে। তবে যদি সত্যিই এই ধরণের ঘটনা ঘটে থাকে প্রশাসন দৃঢ় পদক্ষেপ নেবে বলে তিনি জানান।