স্টাফ রিপোর্টার, বাঁকুড়া: সাপে কাটা রোগীকে ওঝার কাছে নিয়ে গিয়ে বেমালুম সময় নষ্ট করার জন্য প্রাণ গেল এক ব্যক্তির। মৃত ব্যক্তির নাম তাপস চক্রবর্তী (৩২)। ঘটনাটি ঘটেছে বাঁকুড়ার ইন্দাস থানার কলাগ্রামে।

সূত্রের খবর, রবিবার ভোরে প্রকৃতির ডাকে সাড়া দিয়ে বাড়ি ফেরার সময় সেখানের একটি ফাঁকা জায়গায় নেট দিয়ে ঢাকা দেওয়াকালীন একটি চিতি সাপে ওই ব্যক্তিকে কামড়ায়। স্থানীয়দের বক্তব্য, সাপে কাটা ওই রোগীকে হাসপাতাল না নিয়ে গিয়ে সবুজনাড়া গ্রামে কোন এক ওঝার কাছে ঐ চিতি সাপ সহ রোগীকে নিয়ে যাওয়া হয়।পরে ওই ওঝার কাছে থাকা কালীন অবস্থার অবনতি হলে স্থানীয় গোগড়া হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়। পরে সেখানকার চিকিৎসকরা দ্রুততার সঙ্গে বিষ্ণুপুর জেলা হাসপাতালে স্থানান্তরিত করেন। সেখানে নিয়ে গেলে চিকিৎসকরা তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

বর্তমানে সর্বত্র উন্নত চিকিৎসা ব্যবস্থার যুগে একজন সাপে কাটা রোগীকে হাসপাতালে না নিয়ে গিয়ে পরিবারের লোকজন ওঝার কাছে কি করে নিয়ে গেল। সেই নিয়েই এলাকায় প্রশ্ন উঠছে। দিনেও সাপে কাটা যদিও মৃতের পরিবারের তরফে ওঝার কাছে চিকিৎসার কথা অস্বীকার করা হয়েছে।তাঁদের দাবি সাপের কামড় সঠিক কিনা তা জানার জন্য ওই ওঝার কাছে যাওয়া হয়েছিল। ঝাড়ফুঁক বা তুকতাকের জন্য নয়।