স্টাফ রিপোর্টার, পুরুলিয়া: বিক্ষোভ নিয়ন্ত্রণে আনতে গিয়ে স্কুলে ঢুকে ছাত্রীকে হেনস্থার অভিযোগ উঠল মহিলা পুলিশ কর্মীর বিরুদ্ধে৷ হেনস্থার পাশাপাশি ওই ছাত্রীকে মারধর করা হয়েছে বলেও অভিযোগ তুলেছে পড়ুয়ারা৷ অভিযোগ, মহিলা পুলিশ কর্মীর মারে অসুস্থ হয়ে পড়ে ওই ছাত্রী৷ পরে তাকে প্রাথমিক চিকিৎসার পর ছেড়ে দেওয়া হয়৷ সোমবার সকালের এই ঘটনায় তীব্র চাঞ্চল্য ছড়িয়ে পড়ে রজনৌয়াগর ডিপিএম স্কুলে৷

জানা গিয়েছে, এদিন সকালে স্কুলের প্রধান শিক্ষিকা পার্বতী মাহাত ও স্কুলের পরিচালন কমিটির সম্পাদক রাম রায়ের বিরুদ্ধে দুর্নীতির অভিযোগ তুলে বিক্ষোভ দেখান পড়ুয়ারা৷ মিড ডে মিলের খাবারের গুণগত কম দেওয়ার অভিযোগ তুলে স্কুলের গেটের তালা ঝুলিয়ে অবস্থান বিক্ষোভে বসেন পড়ুয়ারা৷ স্কুলে পঠনপাঠন ও পরিকাঠামোর সংক্রান্ত একাধিক দাবিও তোলে পড়ুয়ারা৷ পড়ুয়াদের অভিযোগ, স্কুলে পরিচালন কমিটি তৃণমূলের দখলের আসার পর থেকেই দুর্নীতি শুরু হয়েছে৷ ভেঙে পড়েছে স্কুলের পরিকাঠামো৷

মূলত, এরই প্রতিবাদ জানিয়ে স্কুল গেটে তালা ঝুলিয়ে অবস্থান বিক্ষোভ শুরু করেন পড়ুয়ারা৷ বিক্ষোভ নিয়ন্ত্রণে আনতে পুলিশকে খবর দেয় স্কুল কর্তৃপক্ষ৷ বিক্ষোভ তুলতে ঘটনাস্থলে যায় কেঁদা থানা পুলিশ৷ অভিযোগ, পুলিশ পড়ুয়াদের সঙ্গে বিতর্কে জড়িয়ে পড়ে৷ এক ছাত্রীকে মারধরেরও অভিযোগ ওঠে এক মহিলা পুলিশ কর্মীর বিরুদ্ধে৷ ছড়িয়ে পড়ে উত্তেজনা৷ পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে ঘটনাস্থলে যান স্থানীয় বিডিও৷ বিডিও’র কাছে পুলিশের বিরুদ্ধে অভিযোগ দায়ের করেন পড়ুয়ারা৷ স্কুলে উত্তেজনা থাকায় মোতায়েন করা হয়েছে পুলিশ৷ যদিও, এদিনের এই ঘটনার পরিপ্রেক্ষিতে কোনও মন্তব্য করেনি স্কুল কর্তৃপক্ষ৷

লাল-নীল-গেরুয়া...! 'রঙ' ছাড়া সংবাদ খুঁজে পাওয়া কঠিন। কোন খবরটা 'খাচ্ছে'? সেটাই কি শেষ কথা? নাকি আসল সত্যিটার নাম 'সংবাদ'! 'ব্রেকিং' আর প্রাইম টাইমের পিছনে দৌড়তে গিয়ে দেওয়ালে পিঠ ঠেকেছে সত্যিকারের সাংবাদিকতার। অর্থ আর চোখ রাঙানিতে হাত বাঁধা সাংবাদিকদের। কিন্তু, গণতন্ত্রের চতুর্থ স্তম্ভে 'রঙ' লাগানোয় বিশ্বাসী নই আমরা। আর মৃত্যুশয্যা থেকে ফিরিয়ে আনতে পারেন আপনারাই। সোশ্যালের ওয়াল জুড়ে বিনামূল্যে পাওয়া খবরে 'ফেক' তকমা জুড়ে যাচ্ছে না তো? আসলে পৃথিবীতে কোনও কিছুই 'ফ্রি' নয়। তাই, আপনার দেওয়া একটি টাকাও অক্সিজেন জোগাতে পারে। স্বতন্ত্র সাংবাদিকতার স্বার্থে আপনার স্বল্প অনুদানও মূল্যবান। পাশে থাকুন।.

কোনগুলো শিশু নির্যাতন এবং কিভাবে এর বিরুদ্ধে রুখে দাঁড়ানো যায়। জানাচ্ছেন শিশু অধিকার বিশেষজ্ঞ সত্য গোপাল দে।