স্টাফ রিপোর্টার, কলকাতা: ২০১৫- ২০১৭ সাল পর্যন্ত দেশের অপরাধের রিপোর্ট প্রকাশ করল ন্যাশনাল ক্রাইম রেকর্ডস ব্যুরো(এনসিআরবি)৷ রিপোর্ট বলছে, বাংলায় অপরাধের সংখ্যা কমেছে৷ অর্থাৎ দেশের মধ্যে সবচেয়ে নিরাপদ শহর এখন কলকাতা৷

এনসিআরবি রিপোর্ট বলছে, দেশে অপরাধের তালিকায় শীর্ষে রয়েছে উত্তরপ্রদেশ। দেশের অপরাধের ১০.১ শতাংশই ওই রাজ্যে৷ তালিকায় দ্বিতীয় স্থানে রয়েছে মহারাষ্ট্র৷ ন্যাশনাল ক্রাইম রেকর্ডস ব্যুরো-র ২০১৭ সালের তথ্য এমনটাই জানাচ্ছে। যদিও দুই বছর পরে ফের এই রিপোর্ট প্রকাশ্যে এল৷ ২০ লক্ষ বা তার বেশি জনসংখ্যা আছে এমন ১৯টি বড় শহরে সংঘটিত অপরাধের সংখ্যা বিচার করে ন্যাশনাল ক্রাইম রেকর্ডস ব্যুরো৷

শহরের প্রতি ১ লক্ষ জনসংখ্যা পিছু সংঘটিত অপরাধের বিচারে কলকাতায় অপরাধের হার ২০১৬ সালের ছিল ১৫৯.৬৷ ২০১৭ সালে তা কমে দাঁড়িয়েছে ১৪১.২। দেশের অন্যান্য বড় শহরে গড় অপরাধের হার যেখানে ৪৬২.২ ৷ অন্যদিকে ২০১৪-২০১৭ এই ৪ বছরে কলকাতার বিভিন্ন থানায় জমা পড়া মোট অভিযোগের সংখ্যাও

চোখে পড়ার মতো কমেছে। ২০১৪ সালে কলকাতার থানাগুলিতে জমা পড়া মোট অভিযোগের সংখ্যা ছিল ২৬,১৬১। ২০১৭-তে তা ৩১.৩ শতাংশ কমে দাঁড়িয়েছে ১৯,৯২৫-এ।

বিশেষ করে মহিলাদের নিরাপত্তা এবং সুরক্ষাতেও এগিয়ে কলকাতা৷ রাজধানী দিল্লিতে যেখানে ১,১৭০টি ধর্ষণ এবং ৪৭২টি পিছু নেওয়ার অভিযোগ জমা পড়েছে, কলকাতায় সেখানে ধর্ষণ এবং পিছু নেওয়ার অভিযোগের সংখ্যা যথাক্রমে ১৫ এবং ৫৩। এছাড়া উত্তরপ্রদেশে ৫৬,০১১ টি অপরাধ এবং মহারাষ্ট্রে নথিভুক্ত ৩১,৯৭৯টি ঘটনা নথিভুক্ত হয়েছে৷ তার তুলনায় কম পশ্চিমবঙ্গে৷ এই শহরে ঘটেছে ৩০,৯৯২টি ঘটনা৷

কলকাতা পুলিশের মতে,এই পরিসংখ্যান নিঃসন্দেহে কলকাতার মানুষের কাছে গর্বের৷ শহরের নিরাপত্তা-ব্যবস্থা দৃঢ় করার স্বার্থে বেশ কিছু নতুন থানা গড়ে তোলা হয়েছে। প্রশিক্ষণপ্রাপ্ত পুলিশকর্মীদের নিয়ে তৈরি হয়েছে একাধিক বিশেষ ইউনিট। বিশেষ গুরুত্ব দেওয়া হয়েছে রাতের শহরের সুরক্ষায়। অপরাধদমনের পাশাপাশি নানা বিষয়ে সচেতনতা গড়ে তোলার কর্মসূচিও নিয়ে থাকে কলকাতা পুলিশ৷