স্টাফ রিপোর্টার, কলকাতা : পাঁচ জুন ফের দেখা গেল সেই মহাজাগতিক ঘটনা। এক বিন্দুতে এল সূর্য ও শহর কলকাতা তার পার্শ্ববর্তী হেলা হাওড়া। ফলে দেখা মিলল ‘জিরো শ্যাডো’-র।

অ্যাস্ট্রনমি সেন্টারের ব্যখ্যা কী? বিজ্ঞানীরা জানাচ্ছেন, ২২.৫ ডিগ্রি উত্তর অক্ষাংশ অতিক্রম করছে সূর্য। তার ফলে, কলকাতায় , হাওড়া সহ বেশ কিছু অঞ্চলে ১১.২৬মিনিটে সূর্য ছিল ঠিক মাথার উপরে। একটুও কোণাকুণি ভাবে ছিল না। সাধারণত, কর্কটক্রান্তি রেখার দক্ষিণে থাকার জন্য প্রতি বছরই ২ বার করে সূর্য কলকাতার ঠিক মাথার উপর দিয়ে যায়। তার মধ্যে একটি দিন ৩ বা ৪ জুন। তারপরে ফের এই ঘটনা দেখা যায় ৫ জুন।

কলকাতা ও হাওড়ায় ৫ জুনের পর এই ঘটনা ফের দেখা যাবে ৭ জুলাই। মূলত সূর্য তার উত্তরায়ণের পথে ৫ই জুন,এবং দক্ষিণায়নের ফিরতি পথে ৭ জুলাই কোলকাতা-হাওড়ার একই অক্ষাংশে পৌঁছাবে। তাই ঐ দু’দিন স্থানীয় সময় দুপুর ১২ টায়, অর্থাৎ ভারতীয় সময় ১১.৩৬ মিনিটে সূর্য ঠিক মাথার উপরে সু-বিন্দুতে থাকবে। তাই প্রত্যেকের ছায়া তার পায়ে পড়বে। কোন পাশে পড়বে না। তাই ছায়া দেখা যাবেনা।

যাঁরা কোলকাতা বা হাওড়ায় থাকেন, ৫ই জুন সকালের রোদ উঠলে ছাদে কিংবা খোলা আকাশের নিচে কয়েকটা বালতি, মগ, টব, বা খাড়া কৌটো কি পাইপ দাঁড় করিয়ে রাখুন। দেখবেন, প্রত্যেকেরই ছায়া পড়েছে পশ্চিম দিকে । এরপর বেলা সাড়ে এগারোটা বাজার একটু আগেই ক্যামেরা নিয়ে আবার সেখানে যান। ১১.৩৬এ সোজা হয়ে দাঁড়ালে দেখবেন ছায়া উধাও হয়েছে।

পশ্চিম বঙ্গের মধ্যে আগামী কয়েকটি স্থানের ছায়াহীন দিন

১০ জুলাই , তমলুক। ৯ জুলাই – খড়্গপুর, মেদিনীপুর,ডেবরা ও বারুইপুর। ৮ জুলাই , ঝাড়গ্রাম, বাগনান, মহেশতলা।৭ জুলাই হাওড়া, কলকাতা, ঘাটশিলা ও হাদনাবাদ। একবার মিস হয়ে গিয়েছে। এবার কারণ জেনে দেখুন ঘটনা।

কলকাতার 'গলি বয়'-এর বিশ্ব জয়ের গল্প