স্টাফ রিপোর্টার, কলকাতা: তৃণমূল কংগ্রেসের জামানায় বাংলার মাটিতে সাম্প্রদায়িক শক্তি মাথাচারা দিয়েছে। এক শ্রেণীর মানুষদের তোষণের সুযোগেই রাজ্যে বেড়েছে বিজেপি। মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় পরিচালিত তৃণমূল কংগ্রেস সরকারের বিরুদ্ধে এমনই অভিযোগ করলেন সিপিএম নেতা শতরূপ ঘোষ।

মঙ্গলবার সকাল থেকে শুরতু হয়েছে দেশের পাঁচ রাজ্যের বিধানসভা নির্বাচনের ভোট গণনা। গণনার শুরু থেকেই সব রাজ্যে পিছিয়ে রয়েছে বিজেপি। যা শুভ সংকেত দিচ্ছে কংগ্রেস শিবিরকে। মধ্যপ্রদেশ ছাড়া আর কোথাও পদ্ম প্রস্ফুটিত হওয়ার সম্ভাবনা নেই বললেই চলে। নিজেদের অধীনে থাকা তিন রাজ্য হাতছাড়া হতে চলেছে বিজেপির।

এই বিষয়ে আলোচনা চলাকালীন বিজেপির সঙ্গে তৃণমূলের তুলনা টেনেছেন শতরূপ। তৃণমূলও বিজেপির মতোই সাম্প্রদায়িক গোষ্ঠীগুলিকে সুযোগ করে দিয়েছে বলে অভিযোগ করেছেন তিনি। নিজের এই স্বপক্ষে যুক্তিও দিয়েছে ডিওয়াইএফআই নেতা। একই সঙ্গে এই বিষয় নিয়ে রাজ্যের পূর্বতন বাম সরকারের সঙ্গে মমতার সরকারের তুলনা করেছেন শতরূপ।

চলতি বছরের মার্চ মাসে সাম্প্রদায়িক সংঘর্ষে উত্তপ্ত হয়ে ছিল আসানসোল। প্রাণ গিয়েছিল এক কিশোরের। মৃত কিশোরের বাবা স্থানীয় একটি মসজিদের ইমাম। শহরকে শান্ত করতে সকলকে চুপ থাকার আহ্বান করেছিলেন সেই পুত্রহারা ইমামা রাশিদি। তৃণমূল কংগ্রেসকে আক্রমণ করতে গিয়ে সেই প্রসঙ্গ টেনেছেন শতরূপ ঘোষ। তিনি বলেছেন, “আমাদের জামানায় কোনও ইমাম ভাতা দেওয়া হয়নি। আর কোনও ইমামকে সন্তানহারা হতে হয়নি।”