মেদিনীপুর: পুলিশের উপর হামলার ঘটনায় তল্লাশির নামে গ্রামে ঢুকে পুলিশি তাণ্ডবের অভিযোগ গ্রামবাসীদের। পুলিশের গাড়ি ভাঙচুর ও আইসিকে মারধরের ঘটনায় বেশ কয়েকজনকে হাজতেও পাঠিয়েছে পুলিশ৷ তল্লাশি নামে কোতয়ালি থানার কেরানিচটি, বারওয়াসহ বেশ কয়েকটি গ্রামেও পুলিশি তাণ্ডবের অভিযোগ।

স্থানীয় বাসিন্দাদের অভিযোগ, জোর করে দরজা ভেঙে রাতে পুলিশ বাড়িতে ঢোকে। আসবাবপত্র তছনছ করে। মহিলাদের হুমকিও দেওয়া হয় বলে অভিযোগ। গ্রামবাসীদের দাবি, যাওয়ার সময় পুলিশ দু’রাউন্ড গুলি চালায়।  বৃহস্পতিবার সকালে পশ্চিম মেদিনীপুরের শালবনিতে পথ দুর্ঘটনায় দুই স্কুলপড়ুয়ার মৃত্যুকে কেন্দ্র করে জনতা-পুলিশের সংঘর্ষে রণক্ষেত্রের চেহারা নেয় শালবনি৷ পুলিশকে মারধর ও পুলিশের গাড়ি ভাঙচুরের অভিযোগ ওঠে৷ ক্ষিপ্ত জনতার মারে জখম অবস্থায় আইসিকে পশ্চিম মেদিনীপুরের একটি নার্সিংহোমে ভর্তি করানো হয়েছে৷

- Advertisement -

গতকালের এই ঘটনার পর রাতে গ্রামে ঢুকে তাণ্ডব চালায় পুলিশ৷ ঘটনায় আটক বেশ কয়েকজন। শালবনি থানার আইসি বিশ্বজিৎ সাহাকে মারধরের ঘটনায় জড়িতদের খোঁজে শালবনির ভাদুতলা, কুতুড়িয়া, ডাঙরপাড়া গ্রামে রাতভর তল্লাশি চালায় পুলিশ। তল্লাশি চলে কোতয়ালি থানা এলাকার কেরানিচটি, বারওয়া-সহ বেশ কয়েকটি গ্রামেও। স্থানীয় বাসিন্দাদের দাবি, জোর করে দরজা ভেঙে পুলিশ বাড়িতে ঢোকে। আসবাবপত্র তছনছ করে। মহিলাদের হুমকিও দেওয়া হয় বলে অভিযোগ।