স্টাফ রিপোর্টার, তমলুক: মুকুল রায় আগেই অভিযোগ করেছিলেন৷ মঙ্গলবার সেই একই অভিযোগ করলেন জেল হেফাজতে থাকা বিজেপি নেতা আনিসুর রহমান৷

একটি রাজনৈতিক সংঘর্ষের ঘটনায় অভিযুক্ত আনিসুরকে নিজেদের হেফাজতে নেয় পাঁশকুড়া থানার পুলিশ৷ মঙ্গলবার ধৃতকে তমলুক আদালতে তোলা হলে বিচারক তাঁকে ৩০ জানুয়ারি পর্যন্ত জেল হেফাজত রাখার নির্দেশ দেন৷

আদালত চত্বরে এদিন আনিসুর অভিযোগ, ‘‘রাজনৈতিক চক্রান্ত করে আমাকে ফাঁসানো হয়েছে।’’ এদিন জেলা আদালতের সামনে আনিসুরের অনুগামীদের ভীড় ছিল চোখে পড়ার মতো৷গত ৭ জানুয়ারি প্রেমিকাকে আত্মহত্যায় প্ররোচনা দেওয়ার অভিযোগে পশ্চিম মেদিনীপুরের কোতওয়ালী থানার পুলিস বিজেপি নেতা আনিসুরকে গ্রেফতার করে।

ওই ঘটনায় ১৮জানুয়ারি পর্যন্ত আনিসুরকে জেল হেফাজতের নির্দেশ দিয়েছিল আদালত৷তার আগেই রাজনৈতিক সংঘর্ষের একটি পুরোনো মামলায় আনিসুরকে গ্রেফতার করে পাঁশকুড়া থানার পুলিস। আদালত সূত্রের খবর, ২০১৬ সালের ২৫ অক্টোবর দুপুরে পাঁশকুড়ার মায়সরা পঞ্চায়েতের উপপ্রধান কুরবান শা’কে সদলে মারধরের অভিযোগ উঠেছিল আনিসুরের বিরুদ্ধে। ওই ঘটনায় আনিসুরকে নিজেদের হেফাজতে নেয় পুলিশ৷