হাওড়া: আমফানে ক্ষতিগ্রস্তদের তালিকায় ভুয়ো নাম নিয়ে এইমুহুর্তে সরগরম হয়ে উঠেছে বাংলার রাজ্য-রাজনীতি। সেই প্রসঙ্গে মন্ত্রী অরূপ রায় হাওড়ায় বললেন আমফানে ক্ষতিগ্রস্তদের তালিকা নিয়ে দুর্নীতির অভিযোগ এলে তা খতিয়ে দেখে ব্যবস্থা নেবে দল।

অনেক ক্ষেত্রেই আমফানের ক্ষতিপূরণ তালিকায় দুর্নীতি ও স্বজনপোষণেরও অভিযোগ উঠেছে। শুধু তাই নয়, তালিকায় এমন মানুষের নাম রয়েছে যারা বিত্তশালী, এমনকি কোনওভাবেই তাঁরা আমফানে ক্ষতিগ্রস্ত হননি। হাওড়া জেলাতেও সাঁকরাইল, দ্যুইল্যা, পাঁচলায় এমন অভিযোগ উঠেছে।

শনিবার এক সাংবাদিক বৈঠকে এমন অভিযোগের বিষয়ে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাব দিতে গিয়ে রাজ্যের সমবায় মন্ত্রী অরূপ রায় জানিয়েছেন, “এর বিরুদ্ধে দল ব্যবস্থা নিচ্ছে। যাদের বিরুদ্ধে দুর্নীতির অভিযোগ রয়েছে তা খতিয়ে দেখে ব্যবস্থা নেওয়া হবে। অনুসন্ধান করে যারা এই দুর্নীতির সঙ্গে যুক্ত তাদের বিরুদ্ধে কড়া ব্যবস্থা নেওয়া হবে। এখনও পর্যন্ত একজনের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে। আমাদের কাছে রিপোর্ট চাওয়া হয়েছে। পাঠিয়ে দিয়েছি। যাদের বিরুদ্ধে দলের কাছে অভিযোগ এসেছে, যারা দুর্নীতির সঙ্গে যুক্ত তাদের বিরুদ্ধে কড়া ব্যবস্থা নেওয়া হবে।”

যাদের ত্রাণ পাওয়ার কথা তারা পাচ্ছে না। এমন অভিযোগের প্রসঙ্গে মন্ত্রী বলেন, “এমন একটা কমপ্লেন আমার কাছে এসেছিল। আমি জেলাশাসককে বলি। জেলাশাসক সেটা প্রথমে তদন্ত করে সব টাকা বন্ধ করে দেন।” অরূপ রায় আরও জানান, “এরজন্য তালিকাও বাতিল হয়ে যায়। বিডিওকে শোকজ করা হয়েছে। এখন নতুন করে তালিকা প্রস্তুত হচ্ছে। এটা জেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে পদক্ষেপ নেওয়া হয়েছে। দলের গুরুত্বপূর্ণ পদে থেকে যারা এই দুর্নীতির সঙ্গে যুক্ত থাকবে তাদের কাউকেই দল রেয়াত করবে না।”

এদিনের সাংবাদিক বৈঠকে অরূপ রায় কেন্দ্রের বিজেপি সরকারের কড়া সমালোচনা করেন। মোদী সরকার মানুষকে প্রতারণা করছে বলে মন্তব্য করেন তিনি। পাশাপাশি, বিজেপি বাংলার ভাবমূর্তিকে ক্ষুণ্ণ করছে বলেও তোপ দাগেন তিনি।

লাল-নীল-গেরুয়া...! 'রঙ' ছাড়া সংবাদ খুঁজে পাওয়া কঠিন। কোন খবরটা 'খাচ্ছে'? সেটাই কি শেষ কথা? নাকি আসল সত্যিটার নাম 'সংবাদ'! 'ব্রেকিং' আর প্রাইম টাইমের পিছনে দৌড়তে গিয়ে দেওয়ালে পিঠ ঠেকেছে সত্যিকারের সাংবাদিকতার। অর্থ আর চোখ রাঙানিতে হাত বাঁধা সাংবাদিকদের। কিন্তু, গণতন্ত্রের চতুর্থ স্তম্ভে 'রঙ' লাগানোয় বিশ্বাসী নই আমরা। আর মৃত্যুশয্যা থেকে ফিরিয়ে আনতে পারেন আপনারাই। সোশ্যালের ওয়াল জুড়ে বিনামূল্যে পাওয়া খবরে 'ফেক' তকমা জুড়ে যাচ্ছে না তো? আসলে পৃথিবীতে কোনও কিছুই 'ফ্রি' নয়। তাই, আপনার দেওয়া একটি টাকাও অক্সিজেন জোগাতে পারে। স্বতন্ত্র সাংবাদিকতার স্বার্থে আপনার স্বল্প অনুদানও মূল্যবান। পাশে থাকুন।.

জীবে প্রেম কি আদৌ থাকছে? কথা বলবেন বন্যপ্রাণ বিশেষজ্ঞ অর্ক সরকার I।